সাহিত্য সাপ্তাহিকী

শান্তনু বিশ্বাসের নাট্যচিন্তা

১৩৮৯ বঙ্গাব্দের ফাল্গুন মাসে (মার্চ ১৯৮৩) শান্তনু বিশ্বাসের সম্পাদনায় তৎ-কর্তৃক প্রকাশিত হয় ‘প্রসেনিয়াম’ ষাণ্মাসিক নাট্যপত্রের প্রথম সংখ্যা। ১৩৯৬ বঙ্গাব্দের জৈষ্ঠ্যমাসে (জুন ১৯৮৮) ষষ্ঠ সংখ্যা...

ডালিয়া নাহারের দুটি কবিতা

কল্পলোক খুব তো তুমি ভালোই ছিলে গোলাপ কাঁটার কষ্ট নিলে শমসেরেতে হীরের চমক? মুক্তোদানা ছড়িয়ে দিলে। কবি তোমার ছন্দপ্রীতি কোন মুলুকে টানবে ইতি সপ্ত সুরে তান ধরেছে মেলছে ডানা অজানাতে অবাক মানি...

সংগ্রাম

অ কানছনের মা কই গেলা, ভাত দেও দিহি, ম্যালা খিদা পাইছে। চাইড্ডা খাইয়া ইট্টু জিরাইয়া লই। ম্যালা কাম পইরা রইছে বেলা পরনের আগই আবার...

রবীন্দ্রনাথের ভাবনায় বর্ষা : কথা-কবিতা-গানে

অনেকেই মনে করেন, গান জিনিসটা কেবল শোনার বিষয়। আর বিষয়টি হলো বিনোদনের জন্যে। বিনোদনের কথা উঠলে মনে এলেই সেটা অনেকটা খানিকটা সময় কাটানোর ব্যাপারটি...

আষাঢ় সংস্কার

আকাশে মেঘের ঘনঘটা, বুঝতে পারি না আর এখন বাজে কয়টা, এখনও রয়েছে পড়ে, সব আয়োজন, এখনও জলের জন্যে হয়নি পোষণ, যতোই মিনতি করি, আসবেই জল পাহাড়তো বসে আছে, ঢালবেই...

শ্রাবণের দিনে

শ্রাবণের দিনে ব্যথিত হৃদয় এখানে শ্রাবণ নেই ! শুধু কালো মেঘ, অন্ধকার- ভয়াবহ ভবিতব্যতা ছেয়ে আছে চিত্রকল্পে বুদ্ধিজীবী প্রশাসকরা স্তব্ধ! অসহায়ত্বে কাঁদে মানুষ কাঁদে শহর,গ্রাম রক্তে ভিজে আছে সব...

আমি আষাঢ়ের মেঘ

আমি আষাঢ়ের মেঘ ছুঁয়ে যাই তোমার হৃদয়, উদাসিন ছিলে এতোকাল নিবিড় পরিচর্যায়। নিদাঘ দুপুর বেলা অনন্ত অপার সংশয়, তোমার অবসর, স্বপ্নকাতরতা মুছে ফেলে দুঃস্বপ্নের বিহ্বলতা। তোমার ফেলে আসা দিন চৈত্র-বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠের খরা, তপ্ত গরম...

ভাগ্যিস তুমি বৃষ্টির পর এসেছিলে

ভাগ্যিস তুমি সেদিন বৃষ্টির পর এসেছিলে-- আমি সজল ছিলাম, আমি বিজন ছিলাম। আমি জলছলছল বৃষ্টির শব্দে বিভোর ছিলাম। সুরের সঙ্গ পেতে ব্যাকুল একটি গীতিকবিতা হয়েছিলাম। জেনে হয়তো বা না...

অন্য বরষায়

প্রথম শ্রাবণ আজ, তুমি ব্যস্ত ঘরের জলসায় বাইরে বৃষ্টির মুখ, মুখর অন্বেষায় তোমার উঠোন থেকে ফিরে গেছে, আজ সে আলুথালু ঝাউবনে জামার আস্তিন খুলে কাঁদতে বসেছে বজ্রের নাকাড়া...

বর্ষণের নগরী

সুদূর প্রবাস ছেড়ে বহুদিন পর তোমারই কাছে আসি তোমার সঙ্গ চাই, ছায়াময় ঘরে একা ভিজে ভিজে বর্ষায় কেটেছে দিন। আমার সকল বেলা একাকার বিষাদের জলে। খানিক চোখের দেখা কভুও...

আরো খবর

ইন্ধনদাতা এনজিওগুলোর তালিকা হচ্ছে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বিবিসিকে বলেছেন, রোহিঙ্গারা যাতে দেশে ফেরত না যায়, সে ব্যাপারে কিছু এনজিও ইন্ধন যোগাচ্ছে এবং সেখানে রাজনীতি করছে।...
x