আনন্দ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বৃদ্ধাশ্রম

যীশু সেন

বৃহস্পতিবার , ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ১০:২২ পূর্বাহ্ণ

বৃদ্ধাশ্রম নয়, পরিবার ও সন্তানই হোক বাবা মায়ের শেষ আশ্রয়স্থল। এই স্লোগানকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম আনন্দ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশেষ আয়োজন সংগীতানুষ্ঠান ‘বৃদ্ধাশ্রম’। গত ১৭ নভেম্বর রবিবার সন্ধ্যায় নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংগঠনের উপদেষ্টা মাহাবুব-উল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আশরাফ মাসুদ এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন কোতোয়ালী থানার ইনচার্জ অফিসার মোহাম্মদ মহসীন (পিপিএম)। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আনন্দ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের উপদেষ্টা বৈশাখী মেন্ডিস। বক্তব্য রাখেন সগঠনের পরিচালক তবলা শিল্পী লিটন মিত্র। আলোচনা শেষে সাংস্কৃতিক পর্বের শুরুতে বৃদ্ধাশ্রম নিয়ে প্রামান্য চিত্র। এরপর একক সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী রিতু বড়ুয়ার কণ্ঠে ‘ও তোতা পাখিরে’, ‘আমার সাধ না মিটিলে’। শিল্পী প্রিয়াংকা দাশ পরিবেশন করেন ‘বিছানার পাশে পড়ে আছে’, ‘যতবার মাগো আমি তোমার’। শিল্পী তন্দ্রা সিংহ পরিবেশন করেন ‘আমার চেতনা চৈতন্য করে’, ‘একটা চাঁদ ছাড়া রাত’। শিল্পী লুপর্না মুৎসুদ্দী পরিবেশন করেন ‘পথের ক্লান্তি ভুলে’, ‘পুত্র এখন পয়সালা’। শিল্পী তাসনিম যারীন ইসমি পরিবেশন করেন ‘মাগো তোর কান্না আমি’, ‘সবাই বলো মা’। শিল্পী মিকাতুন জান্নাত পরিবেশন করেন ‘মধুর আমার মায়ের হাসি’, ‘যখন রাত্রি নিঝুম নেই’। শিল্পী মো. মহিউদ্দিন শাহীন পরিবেশন করেন ‘বড় আশা করে এসেছি’, ‘মাগো মা, ওগো মা’। শিল্পী মিতা নুর পরিবেশন করেন ‘মাগো আর তোমাকে’, ‘পৃথিবীর বুকে আমি’। শিল্পী অনন্যা সেন নিপা পরিবেশন করেন ‘জননী আমার তুমি পৃথিবী’, ‘ফিরে এসো মা’। শিল্পী সুকুমার দে পরিবেশন করেন ‘সাদা কাপড় পড়াইয়া’, ‘মায়ের কান্দন যাবত জীবন’। যন্ত্রে সহযোগিতায় ছিলেন- তবলায় লিটন মিত্র, কী-বোর্ডে রুমেল শীল ও নয়ন বিশ্বাস, একোষ্টিক গীটারে শুভ বড়ুয়া, অক্টোপ্যাডে কুশলব শীল জুই, বেইজ গীটারে তন্ময় দত্ত, ঢোলকে শিবু জলদাস, বাঁশিতে মানিক কুমার দাস। সহযোগিতায়- রণী ইলেকট্রিক।

x