নাজিরহাট হানাদার মুক্ত দিবস আজ

হাটহাজারী প্রতিনিধি

সোমবার , ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৯:০৮ পূর্বাহ্ণ

আজ ৯ ডিসেম্বর, নাজিরহাট হানাদার মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনটি ছিল বৃহস্পতিবার। সেদিন নাজিরহাটে পাক হানাদার বাহিনীর সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মুখ যুদ্ধ হয়। ভোরে হামলায় টিকতে না পেরে পাক হানাদার বাহিনী পিছু হটে। এরপর শুরু হয় মুক্তিকামী ছাত্র জনতা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের আনন্দ উল্লাস।
সেদিনের বিজয় উৎসবে ফটিকছড়ি ও হাটহাজারীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মুক্তিযোদ্ধারা নাজিরহাটে সমবেত হন। যোগ দেয় ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের জওয়ানেরাও। তারা চাঁদের গাড়িতে করে কামান এবং অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে দেশের মানচিত্র অংকিত পতাকা নিয়ে আনন্দ উল্লাস করেন। কিন্তু সন্ধ্যায় গোপন সংবাদ পেয়ে হাজির হয় পলাতক হানাদার বাহিনী। তারা হাটহাজারীর অদুদিয়া মাদ্রাসার সামনে থেকে ৩-৪ টি বাসে নাজিরহাট ফিরে এসে উল্লাসরত মুক্তিযোদ্ধা ও নিরীহ জনতার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। শুরু হয় সম্মুখ যুদ্ধ। এতে অজ্ঞাতসহ ১১ জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। তাঁরা হলেন, বরিশালের নায়েক তফাজ্জল হোসেন, কুমিল্লার সিপাহী নুরুল হুদা, নুরুল আফছার, খুলনার সিপাহী অলি আহম্মদ, সন্দ্বীপের সিপাহী নুরুল ইসলাম, চট্টগ্রামের সিপাহী মানিক মিয়া, নাজিরহাটের ফোরখ আহম্মদ, হাসিনা খাতুন, আবদুল মিয়া ও ফরহাদাবাদের মুজিবুল হক।
১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত হানাদার বাহিনী নাজিরহাট, ফটিকছড়ি এবং হাটহাজারীর বিভিন্ন এলাকায় অগ্নিসংযোগ, হত্যাকাণ্ড, হালদা সেতু ধ্বংসসহ নারকীয় কর্মকাণ্ড চালায়। আজ নাজিরহাট হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে সকাল সাড়ে ১০টায় বাস স্টেশন সংলগ্ন শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের গণকবরে পুস্পস্তবক অর্পণ ও মোনাজাত। অনুষ্ঠান সফল করতে পৃথক উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে।

x