ফিনল্যান্ডকে পুতিনের হুঁশিয়ারি

ন্যাটোর সম্মেলনের পর আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে রাশিয়া

| শুক্রবার , ১ জুলাই, ২০২২ at ৬:৪৯ পূর্বাহ্ণ

পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনে কোনও সেনা মোতায়েন করলে কিংবা সামরিক কোনও অবকাঠামো নির্মাণ করলে রাশিয়া এর জবাব দেবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্‌লাদিমির পুতিন। নর্ডিক ওই দেশ দু’টি ন্যাটোতে যোগদানের আমন্ত্রণ পাওয়ার পর বুধবার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এক বক্তব্যে পুতিন হুঁশিয়ারি দেন। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটো কিয়েভের বিপর্যস্ত সেনাবাহিনীকে আধুনিকায়নের পরিকল্পনায় সম্মত হওয়ার পর ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে রাশিয়া। স্পেনের মাদ্রিদে অনুষ্ঠিত ন্যাটোর সম্মেলনে মস্কোকে পশ্চিমাদের নিরাপত্তায় সবচেয়ে বড় ‘হুমকি’ হিসেবে অভিহিত করেছে জোটটি। খবর বিডিনিউজের। তিনি বলেন, ইউক্রেনের সঙ্গে আমাদের যে সমস্যা আছে, তা ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের সঙ্গে নেই। তারা ন্যাটোতে যোগ দিতে চাইলে দিতে পারে। তবে তাদেরকে বুঝতে হবে যে, আগে কোনও হুমকি ছিল না।

এখন সেখানে সামরিক দল মোতায়েন করা হলে কিংবা কোনও অবকাঠামো স্থাপন করা হলে আমাদেরকে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। যে অঞ্চলগুলো থেকে আমাদের জন্য হুমকি সৃষ্টি করা হয়েছে, সে অঞ্চলগুলোর জন্য একই হুমকি সৃষ্টি করতে হবে। ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষ বলছে, তারা ফ্রন্টলাইনে থাকা পূর্বাঞ্চলীয় শহর লিসিচ্যাংস্ক থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। লুহানস্কের পূর্ণাঙ্গ দখল নেওয়ার ক্ষেত্রে শেষ বাধা লিসিচ্যাংস্কেই এখন রুশ বাহিনীর মূল নজর, শহরটির প্রায় ১৫ হাজার বাসিন্দাকে এখন অবিরাম গোলাবর্ষণের মধ্যে টিকে থাকার লড়াই চালাতে হচ্ছে।

সারাক্ষণ যুদ্ধ চলছে। রুশরা সার্বক্ষণিক আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে। কোনো বিরতি দিচ্ছে না, ইউক্রেনের টেলিভিশনকে বলেছেন আঞ্চলিক গভর্নর সেরহি হাইদাই। পরে তিনি তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে জানান, বৃহস্পতিবার সকালে রুশ বাহিনী লিসিচ্যাংস্কের তেল শোধনাগারেও হামলা চালিয়েছে। ন্যাটোতে যোগ দিলে ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কে নতুন এক ধরনের উত্তেজনা বিরাজ করবে উল্লেখ করে পুতিন বলেন, আমাদের মধ্যে সবকিছু ঠিকঠাক ছিল, কিন্তু এখন কিছু উত্তেজনা থাকতে পারে, অবশ্যই থাকবে।

আমাদের জন্য হুমকি থাকলে তা অবশ্যম্ভাবী। ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার চেষ্টা শুরু করার পর থেকেই রাশিয়া তাদেরকে হুমকি দিয়ে আসছে। গত এপ্রিলে রাশিয়া হুমকি দিয়ে বলেছিল, ফিনল্যান্ড এবং সুইডেন নেটোতে যোগ দেওয়ার পদক্ষেপ নিলে মস্কো বাল্টিক অঞ্চলে সামরিক ভারসাম্য ফিরিয়ে আনতে বাধ্য হবে। তবে ফিনল্যান্ড এবং সুইডেন রাশিয়ার হুমকি-ধামকি অগ্রাহ্য করে তাদের লক্ষ্যে এগিয়েছে।