চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হবে ফৌজদারহাটেই

রতন বড়ুয়া

শুক্রবার , ২৭ জুলাই, ২০১৮ at ৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ
662

ফৌজদারহাট বক্ষব্যাধি হাসপাতাল এলাকায় চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে নীতিগত সিদ্ধান্তের কথা জানা গেছে আগেই। এবার পাওয়া গেল প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনও। গত বুধবার (২৫ জুলাই) এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের বিষয়টি জানিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের চিকিৎসা শিক্ষা অধিশাখার উপসচিব বদরুন নাহার স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে– ‘চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন এলাকায় সলিমপুর ফৌজদারহাটস্থ বক্ষব্যাধি হাসপাতাল ক্যাম্পাসের ২৩.৯২ একর (প্রায় ২৪ একর) ভূমিতে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় অনুমোদন পাওয়া গেছে।’ একই সাথে প্রকল্পের ডিপিপি (ডিটেইল প্রজেক্ট প্রফোর্মা) প্রণয়নসহ বিশ্ববিদ্যালয়টির অন্যান্য কার্যক্রম জরুরিভাবে শুরু করার জন্যও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে প্রজ্ঞাপনে।

অবশ্য, ডিপিপি প্রণয়নের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য প্রফেসর ডা. মো. ইসমাইল খান। তিনি আজাদীকে বলেন, পিডব্লিউডি (গণপূর্ত অধিদফতর) ডিপিপি প্রণয়নের কাজ করছে। সেটি চূড়ান্ত হলে অনুমোদনের জন্য একনেক বৈঠকে পাঠানো হবে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ডিপিপি প্রণয়নের কাজ শেষ হবে আশাবাদ ব্যক্ত করে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম এই উপাচার্য বলেন, মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ভূমি নির্ধারণ করা হলেও তা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের মাধ্যমে এসব জমি এখন মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসেবে গণ্য করা যাবে।

জমির বিষয়টি নিস্পত্তি হওয়ায় এখন অন্যান্য কার্যক্রম দ্রুততার সাথে শুরু করা যাবে বলেও জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডা. মো. ইসমাইল খান।

উল্লেখ্য, এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম সিন্ডিকেট সভায়ও একই জায়গায় (ফৌজদারহাটস্থ বক্ষব্যাধি হাসপাতাল এলাকায়) মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়টি স্থাপনের সিদ্ধান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। গত ৭ জুলাই ঢাকাস্থ লিয়াজোঁ অফিসে এ সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপাচার্যের সভাপতিত্বে সিন্ডিকেটের ১৫ জন সদস্য সভায় অংশ নেন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের (২০১৭ সালের) শুরুর দিকে জাতীয় সংসদে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাস হয়। আইন পাসের পর এপ্রিলেই (২০১৭ সালের) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিয়োগ পান প্রফেসর ডা. মো. ইসমাইল খান। মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো না থাকায় আপাতত ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রফিক্যাল এন্ড ইনফেকসিয়াস ডিজিস (বিআইটিআইডি)’র তৃতীয় তলায় উপাচার্যের অস্থায়ী কার্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। একই সাথে ঢাকা মেডিকেল কলেজেও চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী একটি লিয়াজোঁ অফিস স্থাপন করা হয়েছে।

x