হঠাৎ কমেছে ফেসবুক ফলোয়ার

কমেছে জাকারবার্গেরও

আজাদী অনলাইন | বুধবার , ১২ অক্টোবর, ২০২২ at ১২:৫৪ অপরাহ্ণ

বিশ্বব্যাপী ব্যাপক জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেরই ফলোয়ার হঠাৎ করেই কমে গেছে। আজ সকালে নজরে পড়া বিষয়টিতে দেখা যায় ফলোয়ার কমেছে খোদ ফেসবুক নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান মেটা’র প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মার্ক জাকারবার্গেরও। তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা রাতারাতি দশ কোটি থেকে কমে নেমে এসেছে নয় হাজার নয়শয়ের কাছাকাছি।

এই সপ্তাহের শুরুর দিকে গত সোমবার ও গতকাল মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি বড় বড় মিডিয়া আউটলেটের ফেসবুক ফলোয়ারের সংখ্যায় আকস্মিক হ্রাসের ফলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক নকল বা বট অ্যাকাউন্টগুলি মুছে ফেলতে পারে।

অ্যানালিটিক্স প্ল্যাটফর্ম ক্রাউডট্যাঙ্গলের তথ্য অনুসারে, নিউ ইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্ট, হাফিংটন পোস্ট, দ্য হিল, ইউএসএ টুডে, নিউ ইয়র্ক পোস্ট এবং নিউজউইক সবারই ফলোয়ারের সংখ্যা কমে গেছে।

গত সোমবার নিউ ইয়র্ক পোস্ট-এর ফলোয়ার কমেছিল ৮,২০০ জন, পরেরদিন কমে ৪,৩৭৮ জন।

সোমবার ওয়াশিংটন পোস্ট-এর ফলোয়ার কমেছিল ৫,৮০৪ আর মঙ্গলবার ৪,৩৩৭।

ডিজিটাল মার্কেটিং এনালিস্ট দাঊদ আরমান বলেন, “অনেকদিন ধরে ফেসবুক বিভিন্ন পেজে বিদ্যমান ফেক একাউন্টগুলো বন্ধের চেষ্টা করছিল কিন্তু আমেরিকান বিভিন্ন নিউজ মিডিয়া এবং সেলিব্রেটিদের পেজের ফলোয়ার হঠাৎ করে কমে যাওয়ার সাথে এর কোনো সম্পর্ক আছে বলে মনে হয় না। কারণ নিউজটা শোনার পর আমি বাংলাদেশ এবং ভারতের বেশ কিছু সেলিব্রেটির পেজ খুঁজে এই ধরনের কোনো পরিবর্তন দেখতে পাইনি।”

এটাকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ফেসবুক পেজগুলোর বিরুদ্ধে কোনো আন্তর্জাতিক হ্যাকার গ্রুপের চক্রান্ত বলে মনে করছেন তিনি।

কম্পিউটার হ্যাকিং ফরেনসিক ইনভেস্টিগেটর সাফ্ফাত আহম্মদ খান বলেন, “ফেসবুকের ফলোয়ার কমে যাওয়ার ব্যাপারটি ফেসবুকের কারিগরি বিষয়। ফেসবুক ভুয়া একাউন্ট (বট একাউন্ট) বন্ধ করতে প্রায়ই অভিযান চালিয়ে থাকে। এ একাউন্টগুলো শনাক্ত করতে গিয়ে কোনো একটি ত্রুটি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ফেসবুকের ভাষ্য মতে তারা এই ব্যাপারে খুব দ্রুতই সমাধান দেবে।”

তিনি জানান, ফেসবুকের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড এনফোর্সমেন্ট রিপোর্ট অনুসারে ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে ১.৪ বিলিয়ন সন্দেহভাজন বট অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এবং আগের তিন মাসে ‘ভুয়া অ্যাকাউন্ট’ বন্ধ করা হয়েছে ১.৬ বিলিয়ন।