পঁচাত্তরের মতো আর কোনো ষড়যন্ত্র হতে দেয়া হবে না

উত্তর জেলা আ. লীগের সভায় ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ

আজাদী প্রতিবেদন | রবিবার , ১৪ আগস্ট, ২০২২ at ৬:০০ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, বাঙালির হাজার বছরের পরাধীনতার ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে স্বাধীন বাংলাদেশের সৃষ্টিই হতো না। একাত্তরের পরাজিত শক্তি ও জাতীয়-আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রকারীরা পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু মুজিবকে সপরিবারে হত্যা করেছিল। খুনিরা মনে করেছিল বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে দেশকে পাকিস্তানি ভাবধারায় ফিরিয়ে নিয়ে যাবে; কিন্ত তাদের স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে মুক্তিযুদ্ধের মধ্যদিয়ে জাতির সমস্ত অর্জন ধংস করা হয়েছে।

দেশের সমগ্র উন্নয়ন অগ্রযাত্রা ব্যাহত করা হয়েছে। আল্লাহর রহমতে বাংলার জনগণের সমর্থন নিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে দেশকে উন্নয়ন-অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। গতকাল শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন, বাংলাদেশের মাটিতে পঁচাত্তরের মত আর কোন ষড়যন্ত্র হতে দেয়া হবে না। ২০০১ সালে বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে ২৫ হাজার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী হত্যা করা হয়েছে। আন্দোলনের নামে পেট্রোল বোমা মেরে জীবন্ত মানুষ যারা পুড়িয়ে মারে বাংলাদেশের মাটিতে তাদের রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই। তাদেরকে রাজনীতির মাঠে প্রতিহত করার জন্য তিনি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সংগঠনের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পালিতের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. আতাউর রহমান। আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের সহ সভাপতি অধ্যাপক মো মঈনুদ্দিন, এড. ফখরুদ্দিন চৌধুরী, মো. আবুল কালাম আজাদ, এ টি এম পেয়ারুল ইসলাম, মহিউদ্দিন আহমেদ রাশেদ, আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক নুরুল আনোয়ার চৌধুরী বাহার, মো. জসিম উদ্দিন শাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক খাদিজাতুল আনোয়ার সনি এমপি, নজরুল ইসলাম তালুকদার, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মো হারুন, জাফর আহমেদ, প্রদীপ চক্রবত্তী, মো. নুর খান, নাজিম উদ্দিন তালুকদার, ইঞ্জিনিয়ার মেজবাহ উল আলম লাভলু, আবু তালেব, আফতাব খান অমি, এনায়েত হোসেন নয়ন, আ স ম ইয়াছিন মাহমুদ, জেবুন্নেছা জেসী, কার্যনির্বাহী সদস্য শওকত আলম, বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, ফোরকান উদ্দিন আহমেদ, সরোয়ার হাসান জামিল, ফেরদৌস হোসেন আরিফ, মো সেলিম উদ্দিন, গোলাম রব্বানী, মহিউদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, সাহেদ সরোয়ার শামীম, বখতেয়ার সাঈদ ইরান, হাসিবুন সুহাদ চৌধুরী সাকিব, আখতার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ, মনজুর মোর্শেদ ফিরোজ, ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী, উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দিলোয়ারা ইউসুফ প্রমুখ।