নবী (দ.) পরিবারের ওপর জঘন্য নির্মমতা দেখিয়েছে পাষণ্ড ইয়াজিদ

আন্তর্জাতিক কারবালা মাহফিলের ৮ম দিনে বক্তারা

| সোমবার , ৮ আগস্ট, ২০২২ at ৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ

জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে আন্তর্জাতিক শাহাদাতে কারবালা মাহফিলের ৮ম দিনে গতকাল রবিবার আলোচকরা বলেন, আল্লাহর নেয়ামত পানির অধিকার থেকে কাউকে বঞ্চিত করা যাবে না। পানির ন্যায্য প্রাপ্যতা নিশ্চিত করাই হচ্ছে শাহাদাতে কারবালার দর্শন। কারবালার প্রান্তরে নবী পরিবারের অবুঝ নিষ্পাপ শিশু ইমাম আলী আসগর ও আলী আকবরকে এক ফোটা পানি পর্যন্ত দেয়নি ইয়াজিদ বাহিনী। প্রচণ্ড তৃষ্ণায় প্রাণ বাঁচাতে ছটপট করছিল অবুঝ শিশু ও নারীরা। ফোরাত নদীর পানি থেকে নারী শিশুসহ নবী পরিবারকে বঞ্চিত করে জঘন্য নির্মমতার কারণে ইয়াজিদ চির ধিকৃত ও ঘৃণ্য হয়েই থাকবে। গতকাল ৮ম দিনের মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন মাহফিল পরিচালনা পর্ষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও চেয়ারম্যান এবং পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন চউক চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ। বিদেশি আলোচক ছিলেন আল্লামা সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল হাসানি জিলানী ও ভারত এলাহাবাদের খতিবে লাসানি আল্লামা আকবর ইহসানি। হানাফি মাযহাবের শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে আলোচনা করেন চবি আরবি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ। ইমাম হোসাইন (রা) সম্পর্কে সুলতানুল হিন্দ-এর কবিতার তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ নিয়ে বক্তব্য রাখেন মাওলানা মীর মুহাম্মদ মাঈনুদ্দিন নুরী সিদ্দিকী আল কুরাইশি। কোরআন মজিদ থেকে তেলাওয়াত করেন কারী শায়খ আহমদ নায়না (মিশর) ও আহমদ বিন ইউসুফ আল আজহারী। আলোচক ছিলেন আল্লামা নূর মোহাম্মদ সিদ্দিকী। অতিথি ছিলেন, আল্লামা হাফেজ সোলাইমান আনছারী, সোলায়মান আলম শেঠ, শাহজাদা সৈয়দ আমানুল্লাহ আহসান, ব্যারিস্টার আবু সাঈদ মুহাম্মদ কাশেম, মফজল আহমদ কোম্পানি, শাহাজাদা আবুল ফোরকান হাশেমী, মুহাম্মদ সেলিম। উপস্থিত ছিলেন, মুহাম্মদ আলী হোসেন সোহাগ, মুহাম্মদ খোরশেদুর রহমান, মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক, মুহাম্মদ সিরাজুল মোস্তফা, অধ্যাপক কামাল উদ্দিন আহমদ, মুহাম্মদ আব্দুল হাই মাসুম, মোহাম্মদ দিলশাদ আহমদ, জাফর আহম্মদ সাওদাগর, মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন, মুহাম্মদ মনসুর সিকদার, এস এম সফি, মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।