জনসভায় চট্টগ্রামবাসী অংশ নিয়ে প্রমাণ করেছে তারা শান্তির পক্ষে

মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

আজাদী প্রতিবেদন | মঙ্গলবার , ৬ ডিসেম্বর, ২০২২ at ৬:০৬ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের জনসভা ‘জনসমুদ্রে’ রূপ পেয়েছে। সফল জনসভা সম্পন্ন করতে পেরেছি আমরা। চট্টগ্রাম জেলা থেকে নেতাকর্মীরা দলে দলে অংশ নিয়েছেন। মাঠের বাইরে লাখ লাখ নেতাকর্মী ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিলেন। আমরা আমাদের সাংগঠনিক শক্তির জানান দিতেই এ জনসভা করেছি। মানুষকে আহ্বান জানিয়েছি জনসভায় আসতে।

গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত পলোগ্রাউন্ডের জনসভা পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন এমন দাবি করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, উত্তর জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি, শ্রমিক লীগ নেতা শফর আলী, উত্তর জেলার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পালিত, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, নোমান আল মাহমুদ, মোসলেহ উদ্দিন মনসুর, ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, খোরশেদ আলম, ডা. তিমির বরণ চৌধুরী, প্যানেল মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, হারুনুর রশিদ, অধ্যাপক আবদুল গফুর, রেজাউল করিম বাবুল।

জনসভা সফল করায় চট্টগ্রামবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি বলেন, দেশের মানুষ বিএনপির আগুন সন্ত্রাস, হত্যাকাণ্ডে বিশ্বাস করে না। এদেশের মানুষ উন্নয়ন চায়, কল্যাণ চায়, শান্তি চায়-জনসভায় চট্টগ্রামবাসী অংশ নিয়ে প্রমাণ করে দিয়েছেন। আমি নিজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জিজ্ঞেস করেছি জনসভার বিষয়ে। তিনি জানিয়েছেন তিনি জনসভায় সন্তুষ্ট। আমাদের প্রতিপক্ষকে বলব তারা যেন নির্বাচনমুখী হয়।

তাদের যদি জনসম্পৃক্ততা থাকে, জনসমর্থন থাকে, দেশের মানুষের প্রতি আস্থা থাকে তাহলে তারা নির্বাচনের মাধ্যমে সেই সুযোগ কাজে লাগাক। জ্বালাও পোড়াও না করুক, অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি না করুক সেই আহ্বান জানাই। তত্ত্বাবধায়ক সরকার তারা নিজেই বহু আগে বিলুপ্ত করে দিয়েছে। গত নির্বাচনে তারা এই সরকারের অধীনেই অংশ নিয়েছে।

চন্দনাইশ থেকে জনসভায় যোগ দিতে এসে নিউ মার্কেট মোড়ে অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়া হাশিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জহিরুল ইসলাম বাচার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি ও আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তার পরিবারকে ৫ লাখ টাকা সহায়তা দিচ্ছি। পরে বাচার পরিবারের সাথে দেখা করে নগদ সহায়তা তুলে দেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।