হোটেল আগ্রাবাদের ৫০ বছর

মেড ইন চিটাগাং প্রদর্শনী কাল থেকে তিনদিনের আয়োজন উদ্বোধন করবেন প্রতিমন্ত্রী মাহাবুব আলী

আজাদী প্রতিবেদন | শুক্রবার , ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ at ৪:৩৭ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের খ্যাতনামা হোটেল আগ্রাবাদের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে হোটেল কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে রয়েছে মেড ইন চিটাগাং নামের প্রদর্শনী। এতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে। গতকাল দুপুরে হোটেল আগ্রাবাদের ইছামতী হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানান হোটেল আগ্রাবাদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম হাকিম আলী।
তিনি আরো বলেন, আগামী শনিবার হোটেল আগ্রাবাদের গৌরবময় ৫০ বছর পূর্তি হবে। এই চট্টগ্রামে রয়েছে সমুদ্র বন্দর। দেশের আমদানি রপ্তানি বাণিজ্যের মূল চালিকা শক্তিও এই চট্টগ্রাম। তাই দেশী বিদেশী পর্যটক ও ব্যবসায়িক ব্যক্তিত্বদের চট্টগ্রামের প্রতি বিশেষ টান থাকা সত্বেও তারা থাকা খাওয়ার অসুবিধার কারণে চট্টগ্রামে আসতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন না। এ অসুবিধা ঘুচাতে আমার মরহুম বড় ভাই আলহাজ্ব সবদার আলী বাণিজ্যিক এলাকা আগ্রাবাদেই সকল প্রকার আধুনিক সুবিধা সম্বলিত একটি আবাসিক হোটেল গড়ে তোলেন। তিনি এটি সুনাম ও সফলতার সাথে পরিচালনা করতে থাকেন। আরেকটি বিষয় হলো-আমাদের এই চট্টগ্রামে পর্যটনের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের টানেল, ফ্লাইওভার হয়ে গেলে পর্যটকরা এখানে আসতে আরো বেশি আগ্রহী হবেন। আপনারা দেখবেন, ভারতে মিলিয়ন মিলিয়ন পর্যটক যায়, আর আমরা যদি আমাদের চট্টগ্রামকে ঠিকভাবে প্রমোট করতে পারি, তাহলে সেখান থেকে আমরাও কিছু পাবো। পর্যটন খাত চিন্তা করলে আমরা এখনো ভারত থেকে ২০-২৫ বছর পিছিয়ে আছি। আমি জানি না আপনারা কেউ দিল্লি গেছেন কিনা কিংবা কলকাতা গেছেন কিনা, ওদের এয়ারপোর্ট দেখেন আর আমাদের এয়ারপোর্ট দেখেন। তবে এখন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে এয়ারপোর্টটা বানাচ্ছেন, সেটি হয়ে গেলে আপনারা বলতে পারবেন আমাদেরও ভালো একটা এয়ারপোর্ট আছে। এটি পর্যটন শিল্পের জন্য ইতিবাচক হবে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এইচ এম হাকিম আলী বলেন, হোটেল আগ্রাবাদের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আমরা কিছুদিন আগে একটা চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা করেছি। বাচ্চারা এবং বড়রা যেন জানতে পারে হোটেল আগ্রবাদের ৫০ বছর হয়ে গেছে। এ ছাড়া আগামী শনিবার আমরা মেড ইন চিটাগাং নামের একটা এক্সিভিশন করবো। চিটাগাংয়ে কি কি আছে, ট্যুরিজমের জন্য কি কি হতে পারে, সেগুলো আমরা এক্সিভিশনে দেখাবো। চিটাগাংকে হাইলাইট করাটাই আমার মেইন টার্গেট। এ ছাড়া বিষয় হলো-আপনারা দেখছেন ঈদের ছুটি হোক, পূজার ছুটি হোক, সবাই চলো চলো কক্সবাজার চলো, চলো চলো বান্দরবান চলো কিংবা চলো চলো রাঙামাটি চলো। কেউ চিটাগংয়ে স্টপ ওভার করে না। আমি চেষ্টা করছি, চিটাগাংয়ে কিভাবে স্টপ ওভার করানো যায়। আমি সব সময় ভালো ভালো প্যাকেজ দিই। এই ঈদের সময় আমি আমার হোটেলের রেন্ট হাফ করে দিই। আরো অনেক কিছু করি। আমাদের ইন্ট্রাকো গ্রুপের পতেঙ্গাতে বাটারফ্লাই পার্ক আছে। ওইটাতে আমরা মার্কেটিং করছি, আসো তোমরা চিটাগাং আসে। এ ছাড়া আমাদের পতেঙ্গা বিচ তো আছেই।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হোটেল আগ্রাবাদের এজিএম হাসানুল ইসলাম।
তিনি বলেন, ২৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে হোটেল আগ্রাবাদের সুবর্ণজয়ন্তী। এ উপলক্ষে চিটাগাং উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের উদ্যোগে চট্টগ্রামের কৃষ্টি ও সংস্কৃতি তুলে ধরে আয়োজন করা হবে আকর্ষণীয় ফ্যাশন শো। এ ছাড়া চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খাবার ও পণ্য নিয়ে ‘মেইড ইন চিটাগাং’ শিরোনামে দিনব্যাপী প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। প্রধান অতিথি হিসাবে তিনদিন ব্যাপী এ আয়োজনের উদ্বোধন করবেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহাবুব আলী, বিশেষ অতিথি থাকবেন বিভাগীয় কমিশনার মো. আশরাফ উদ্দিন।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হোটেল আগ্রাবাদের পরিচালক মোহাম্মদ ইরাদ আলী, ব্যবস্থাপক মানব সম্পদ ও প্রশাসন সাইফুর রহমান ও বিভাগীয় প্রধানগণ।