হাতির বিরুদ্ধে জিডি

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি | শনিবার , ২ জুলাই, ২০২২ at ৫:২২ পূর্বাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়ায় বন্যহাতির বিরুদ্ধে জিডি করেছেন অনন্ত চৌধুরী নামে এক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। গতকাল শুক্রবার দুপুরে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় তিনি এ জিডি করেন।
এ বিষয়ে শিক্ষক অনন্ত চৌধুরী জানান, তিনি উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের বড়খোলা পাড়ায় ২০ একর জমিতে একটি আম বাগান করেছেন। যেখানে তিনি বিভিন্ন জাতের আমের আবাদ করেন। বর্তমানে বাগানে আমের ফলন ভালো হয়েছে, আমও পাকতে শুরু করেছে। আমগুলো বাজারজাত করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তিনি।

কিন্তু এ সময় বাগানে হানা দিতে শুরু করেছে এক বন্যহাতি। গত দুইদিনে তার বাগানের অধিকাংশ আম গাছ উপড়ে ফেলে এবং আম খেয়ে সাবাড় করা হয়েছে। এতে তার প্রায় আড়াই লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। তাই বন্যহাতির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে থানায় জিডি করেছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, হাতি শুধু তার বাগানে নয়, আশপাশের অনেকের বাগানে হানা দিচ্ছে। প্রায়শই হাতির কবলে পড়ছে মানুষ। গত কয়েকদিন আগেও হাতির হামলায় নারিশ্চা এলাকায় এক কৃষক মারা গেছেন। এভাবে গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকজন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন হাতির আক্রমণে। কৃষকের রক্ত পানি করা সোনার ফসল নষ্ট করে প্রতিবছর। মানুষের ঘরবাড়ি নষ্ট করে দিচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে শত শত একর ফসলি জমি অনাবাদি থেকে যাচ্ছে। এভাবে হাতি অত্যাচার চালালে আমাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হবে।

জিডির সত্যতা নিশ্চিত করে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি ওবাইদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তা মাসুম কবির বলেন, হাতি ও মানুষের দ্বন্ধ নিরসনে বন বিভাগ কাজ করছে। মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে। হাতির তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্তদের নিয়মিত ক্ষতিপূরণও দেওয়া হচ্ছে। গত কয়েকদিন আগেও হাতির আক্রমণে ফসলহানির ঘটনায় ১১ পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়েছে। এই শিক্ষকের বিষয়টিও তদারকি করে প্রয়োজনে তার ফসলহানির ক্ষতিপূরণ দেয়ার ব্যবস্থা করবো।