রাজস্ব আদেশ জাল করে জমির নামজারির চেষ্টা

১ লাখ টাকা জরিমানা

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি | বুধবার , ২৫ মে, ২০২২ at ৬:০৩ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) আদেশ জাল করে সীতাকুণ্ড উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কার্যালয়ে ভূমি সেবা আদায় করতে আসেন মো. আব্দুল মান্নান নামের এক ব্যক্তি। সেবা গ্রহণের সব ধাপ অতিক্রম করে এসিল্যান্ড পর্যায়ে পৌঁছে যায় তার জাল আদেশটি। আব্দুল মান্নানও ভেবে বসেন তিনি চূড়ান্ত সেবা পেতে বসেছেন। কিন্তু বিধি বাম। আব্দুল মান্নানের দাখিল করা আদেশের কাগজটি সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল আলমের হাতে পৌঁছালে তিনি তা জাল বলে সন্দেহ করেন। পরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) কার্যালয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তা জাল বলে নিশ্চিত হন এসিল্যান্ড। এ জালিয়াতির ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে আব্দুল মান্নানকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। একইসঙ্গে অপরাধের পুনরাবৃত্তি না ঘটাতে তার কাছ থেকে নেয়া হয় মুচলেকা।

গত সোমবার সন্ধ্যায় সীতাকুণ্ড উপজেলা ভূমি অফিসে এ ঘটনা ঘটে। আব্দুল মান্নান সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নের কবির আহম্মদের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন জমি-জমা সংক্রান্ত দালালির কাজে নিয়োজিত বলে জানায় ভূমি অফিস।

এসি ল্যান্ড জানান, রাজস্ব আদেশটি জাল চিহ্নিত হওয়ার পর আব্দুল মান্নানকে হাজির করা হলে তিনি মূল আবেদনকারী নয় বলে জানান। অর্থাৎ আব্দুল মান্নান অন্যের পক্ষে আবেদনটি দাখিল করেছেন যা ভূমি অফিসে দালালরা করে থাকেন। পরবর্তীতে মূল আবেদনকারীকে পাওয়া না যাওয়ায় আব্দুল মান্নানকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল আলম। একই সঙ্গে জীবনে এমন অপরাধের পুনরাবৃত্তি ঘটাবেন না মর্মে মুচলেকা নেয়া হয় তার কাছ থেকে। পরে মান্নান তার অপরাধ স্বীকার করে এসিল্যান্ডের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল আলম বলেন, আব্দুল মান্নানের অপরাধের মাত্রা অনুযায়ী শাস্তি আরও বেশি হত। কিন্তু মূল আবেদনকারীকে পাওয়া না যাওয়ায় জরিমানা করা হয়েছে। তবে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে জালিয়াত চক্রের সিন্ডিকেটের তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছে। এ ধরনের জালিয়াতের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ বিষয়ে অর্থদণ্ড প্রাপ্ত আব্দুল মান্নান বলেন, তিনি অন্যের পক্ষে আবেদনটি দাখিল করেছেন। আবেদনের বিষয়ে তার বিস্তারিত জানা ছিল না।