মাকে এক রুমে আটকে রেখে আরেক রুমে দশম শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা

পটিয়া প্রতিনিধি | রবিবার , ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ at ৬:০৫ পূর্বাহ্ণ

পটিয়ায় সিলিং ফ্যানে ঝুলে ছুমাইয়া সুলতানা (১৬) নামের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। সে উপজেলার হাইদগাঁও ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা প্রবাসী জসিম উদ্দিনের কন্যা। গতকাল শনিবার সকাল ১১টার দিকে হাইদগাঁও দিঘীরহাট এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলার হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী সুমাইয়া সুলতানা প্রতিদিনের মত গতকাল শনিবার সকালে পটিয়া সদরে একটি কোচিং সেন্টারে কোচিং করতে যায়। কোচিং শেষে বাসায় ফিরে তার মাকে টেনে একটি রুমে নিয়ে বাইরে তালা লাগিয়ে দেয়। পরে সে আরেকটি রুমে গিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে। মা কোহিনূর আকতারের চিৎকারে আশপাশের লোকজন দৌড়ে এসে স্কুল ছাত্রীর রুমের জানালা ভেঙে দেখতে পান ছুমাইয়া ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

হাইদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্য রেখা দাশ জানিয়েছেন, কি কারণে স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে তা তিনি জানেন না। স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার আগে তার মাকে একটি রুমে আটকে রাখে। পরে আরেকটি রুমে গিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার জানিয়েছেন, স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করার খবর পেয়ে ওই ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে পোস্টমর্টেমের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।