বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চেয়ে ১৪ দেশ ও ইইউর বিবৃতি

| বুধবার , ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ at ৬:১৯ পূর্বাহ্ণ

অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বিদেশি হস্তক্ষেপে সরকারের অসন্তোষের মধ্যেই বাংলাদেশের অবাধ, সুষ্ঠু, ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে চেয়ে বিবৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রসহ ১৪ দেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার ওইসব দেশ ও ইইউর ঢাকা মিশনগুলোর এই যৌথ বিবৃতি আসে।

বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা বাংলাদেশের বন্ধু ও অংশীদার হিসেবে এদেশের সাফল্যকে আরও উৎসাহিত করতে আগ্রহী এবং মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অবাধ, সুষ্ঠু, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রক্রিয়ার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করছি। খবর বিডিনিউজের।

বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বজায় থাকার প্রত্যাশা জানিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অর্থপূর্ণ অংশগ্রহণ, সমতা, নিরাপত্তা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক মানবিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য অনুসরণীয় মূল্যবোধ ও নীতি হিসেবে আমরা গণতান্ত্রিক শাসনকে সমর্থন ও উৎসাহিত করি।

পরবর্তী সংসদ নির্বাচনের বছর খানেক আগে বাংলাদেশে যখন রাজনীতির মাঠে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে, তখন বেশ কয়েকজন রাষ্ট্রদূত ভোট নিয়ে বক্তব্য রাখেন, যা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া আসে সরকারের কাছ থেকে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে কূটনীতিকদের শিষ্টাচার মেনে চলার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি বলেন, বাংলাদেশ এখন কারও উপনিবেশ নয়।

মঙ্গলবার বিদেশি কূটনীতিকদের বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আমরা মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়ন উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের মৌলিক ভূমিকাকে তুলে ধরতে চাই। আমরা মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণাপত্রে সংরক্ষিত স্বাধীনতা উদযাপন করি এবং ঘোষণাপত্রে বর্ণিত বিভিন্ন অঙ্গীকারের মধ্যে স্বাধীন মতপ্রকাশ, শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও নির্বাচন বিষয়ে জাতিসংঘের সব সদস্য রাষ্ট্রের অঙ্গীকার রক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরি।

বিবৃতিদাতা মিশনগুলো হল যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, জাপান, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া।