ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে সমাজে অনাচার থাকবে না

রাস উৎসবে মেয়র

মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর, ২০১৯ at ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ
9

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ধর্মীয় উৎসব মানুষে মানুষে সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ় করে। প্রত্যেক ধর্মের মূল মন্ত্র মানবতার কল্যাণে কাজ করা। ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে সমাজে বিরাজমান সকল অনাচার দূর হয়ে যাবে। মনুষ্যত্ব অর্জন ছাড়া মানুষের জীবনে সার্থকতা আসে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খৃস্টান সকল সম্প্রদায়কে সাথে নিয়ে এদেশকে শান্তি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির তত্ত্বাবধানে ও কেন্দ্রীয় রাস উৎসব উদযাপন পরিষদ আয়োজিত জেএমসেন হল প্রাঙ্গণে চারদিনব্যাপী রাস মহোৎসবের ১ম দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব একথা বলেন। রাস উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক বাবুল ঘোষ বাবুনের সভাপতিত্বে ধর্মসম্মেলনে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন করে উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সাধারণ সম্পাদক স্বামী শক্তিনাথানন্দজী মহারাজ। আশীর্বাদক ছিলেন সীতাকুণ্ড শংকর মঠ ও মিশনের শ্রীমৎ স্বামী লক্ষ্মী নারায়ণ কৃপানন্দ পুরী মহারাজ। অতিথি ছিলেন চট্টগ্রামস্থ ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনারের সেকেন্ড সচিব শুভাশীষ সিনহা। বিশেষ অতিথি ছিলেন জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সুজিত কুমার বিশ্বাস, পরিষদের সাবেক সভাপতি ও রাউজান পৌর মেয়র দেবাশীষ পালিত, বর্তমান কেন্দ্রীয় সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা গৌরাঙ্গ দে, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. তপন কান্তি দাশ, অ্যাড. চন্দন তালুকদার, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে, পরিষদের কার্যকরি সভাপতি ডা. মনোতোষ ধর, পরিষদ নেতা শিল্পপতি অলক দাশ, পরেশ চৌধুরী, চন্দন দাশ, লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য, লায়ন তপন কান্তি দাশ, প্রকৌশলী আশুতোষ দাশ, সাধন চৌধুরী, ডা. বিধান মিত্র, রতন আচার্য্য, আশীষ চৌধুরী, শ্রীপ্রকাশ দাশ অসিত, রত্নাকর দাশ টুনু, ঝুন্টু চৌধুরী, ডা. কথক দাশ প্রমুখ। সঞ্চালনায় ছিলেন রাস উৎসব উদযাপন পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক গৌতম পালিত টিকলু। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x