চাল নিয়ে চালবাজি বন্ধ করা হোক

| শুক্রবার , ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ at ৪:৩৯ পূর্বাহ্ণ

মানুষের মৌলিক অধিকারের মধ্যে অন্যতম হলো খাদ্য। বাঙালির ঐতিহ্য প্রবাদ বচনে রয়েছে মাছে ভাতে বাঙালির কথা। কৃষি প্রধান দেশ বাংলাদেশে চালের উৎপাদনও চাহিদার তুলনায় কম নয়। বিশ্ব বাজারে চালের দামও অন্য সব শর্করা সমৃদ্ধ খাদ্য পণ্যের চেয়ে অনেক বেশি। তাই কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা চাল মজুদ করে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনা করে। ফলে এর প্রভাবে খোলা বাজারে বস্তা প্রতি ৩০০, ৪০০ টাকা পর্যন্ত বাড়ে। এসব অসাধু ব্যবসায়ীরা যুগের পর যুগ মোটা চাল মেশিনে কেটে চিকন করে মোমের প্রলেপ দিয়ে চকচক করে মিনিকেট নাম দিয়ে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি হয়ে আসছে। মিনিকেট নিয়ে ভোক্তাদের অভিযোগ ও গণমাধ্যামে সংবাদ প্রচারে টনক নড়েছে কর্তৃপক্ষের। মিনিকেট চাল বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ভেজাল মিনিকেট চাল বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিলেও চালের সিন্ডিকেট চক্রের অসাধু ব্যবসায়ীদের দমানো যাচ্ছে না কোনো ভাবেই। দফায় দফায় ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছে মত চালের দাম বাড়ানোর কারণে মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবারের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ চালের বাজারের সিন্ডিকেট ভেঙ্গে অসাধু ব্যবসায়ীদের কঠোর নজরদারি করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক সাধারণ মানুষের জীবনমান স্বাভাবিক রাখুন।

আলতাফ হোসেন হৃদয় খান
পাঁচলাইশ ৩নং ওয়ার্ড, চট্টগ্রাম।