কেন আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন দীপিকা?

| শনিবার , ৬ আগস্ট, ২০২২ at ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ

মানসিক অবসাদে ভুগতেন বলিউডের দীপিকা পাড়ুকোন, আর সেই সময়ে আত্মহত্যার কথাও ভেবেছিলেন তিনি। বছর খানেক আগেই নিজের জীবনের সেই খারাপ সময়ের কথা সবার সঙ্গে শেয়ার করেছিলেন দীপিকা। খবর বাংলানিউজের।
এরপরেই রাতারাতি তার জীবন হয়ে ওঠে আরো অনেকের কাছে অনুপ্রেরণা। তারপর লিভ লভ লাফ নামের নিজের একটি এনজিও শুরু করেন দীপিকা। এই সংস্থা তাদের পাশে দাঁড়ায়, যারা মানসিক অসুস্থতায় ভুগছে। সমপ্রতি এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে নিজের অবসাদের গল্প শেয়ার করেছেন দীপিকা। কালো রঙের সিকোয়েন্স ও শিমারি শাড়িতে এদিন দীপিকার লুক ছিল নজরকাড়া। এই অনুষ্ঠানে দীপিকা জানান, অবসাদে একবার আত্মহত্যার কথাও ভেবেছিলেন তিনি। তবে তার মা প্রথম বুঝতে পারেন যে, অবসাদে ভুগছেন দীপিকা। দীপিকা বলেন, ‘আমি তখন ক্যারিয়ারের শীর্ষে ছিলাম। আমার জীবনে সব ঠিকঠাকই ছিল। তাই আমার মন খারাপের কোনো বিশেষ কারণ ছিল না। কিন্তু আমার মন ভালো ছিল না। সেই সব দিনে আমি শুধু ঘুমাতে চাই। কারণ ঘুমই ছিল আমার পালানোর একমাত্র উপায়। আমি তখন আত্মহত্যাপ্রবণ হয়ে উঠেছিলাম। তিনি বলেন, ‘আমার বাবা-মা বেঙ্গালুরুতে থাকতেন, মাঝে মাঝে আমার সঙ্গে দেখা করতে আসতেন। আমি তখন ওদের দেখাতাম যে আমি খুব ভালো আছি। একদিন ওরা বেঙ্গালুরু ফেরত যাচ্ছিল আর তখনই আমি কান্নায় ভেঙে পড়ি। মা আমাকে জিজ্ঞেস করে- কেন কাঁদছি? কোনো বয়ফ্রেন্ড আছে কিনা? কাজের ক্ষেত্রে কিছু ঘটেছে কিনা? আমার কাছে কোনো উত্তর ছিল না। এই বলিউড তারকা বলেন, ‘আমার কাছে উত্তর ছিল না কারণ সেরকম কোনো বিষয় ছিল না। মা সঙ্গে সঙ্গেই বুঝতে পারে যে, আমি অবসাদে ভুগছি। আমার জন্যই মাকে ভগবান পাঠিয়েছিল বলে আমার ধারণা। সবার মধ্যে সচেতনতা বাড়াতেই বারবার নিজের জীবনের অবসাদের গল্প তুলে ধরেন দীপিকা। অবসাদে ভুগেছেন অনেকেই কিন্তু দীপিকার মতো সাহসের সঙ্গে তা তুলে ধরতে পারেন না জনসমক্ষে। অবসাদ থেকে বেরিয়ে এসে তিনি যেভাবে নিজেকে বলিউডে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তা সত্যিই অনুপ্রেরণা জোগায় অনেককেই।