আমাদের যা কিছু নান্দনিক তার নেপথ্যে গণিত

চবি গণিত অ্যালামনাইয়ের মিলনমেলা

আজাদী প্রতিবেদন | রবিবার , ৯ জানুয়ারি, ২০২২ at ১০:০০ পূর্বাহ্ণ

কুয়াশার চাদর এখন পর্যন্ত ম্লান করতে পারেনি প্রকৃতির শুদ্ধতাকে। শিরা উপশিরায় পৌষী হাওয়ার কাঁপন জাগেনি স্বভাবতই। তবে হাড় কাঁপানো শীতও বন্ধুত্বের উষ্ণতাকে ম্লান করতে পারতো না। নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণ অন্তত সে কথাটিরই জানান দিয়েছে গতকাল বিকেলে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় গণিত অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের উদ্যোগে গণিত মিলনমেলা ২০২২ অনুষ্ঠিত হয় গতকাল বিকেল তিনটায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে। মিলনায়তনের ভেতরে ও বাইরে হৃদয়ের উষ্ণতা রোদের ভেতর রোদ হয়ে ওম দিয়ে চলেছিল বুকের ভিটায়। এ উষ্ণতায় ভেদাভেদ নেই, আছে মিলনপিয়াসী সুখ সুখ অনুভূতি। সামাজিক বৈষম্য, জাত, ধর্ম, বর্ণ কিছুই তাতে ব্যারিকেড দিতে পারেনি।
মিলনমেলাকে ঘিরে বিকেল ৩টা থেকেই পরিবার-পরিজন নিয়ে আসা প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হতে থাকে পুরো মিলনায়তন। দীর্ঘদিন পর পুরনো বন্ধুর দেখা পেয়ে একে অপরের সাথে কুশল বিনিময় করতে দেখা যায়। স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে অনেকে ফিরে যান শৈশবের মধুর দিনগুলোয়। সদস্যদের স্মৃতিচারণ ও পরিবারের সদস্যদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পিঠা উৎসব, সদস্যদের ব্যাচ ভিত্তিক পরিচিতি পর্ব, আমন্ত্রিত শিল্পীদের অংশগ্রহণে নৃত্য পরিবেশনা, আলোচনা অনুষ্ঠান ও কৃতি সন্তানদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ, আমন্ত্রিত শিল্পীদের অংশগ্রহণে সংগীতানুষ্ঠান, নৈশ ভোজ ও র‌্যাফেল ড্রসহ নানা কর্মসূচিতে মিলনমেলায় উল্লাসে মেতে ওঠেন তারা। সন্ধ্যায় আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। বক্তব্যে তিনি বলেন, গণিতের শিক্ষার্থীরা দেশের সম্পদ। দেশ বিদেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষার্থীরা সাফল্য রেখে চলেছেন। তিনি আরো বলেন, গণিতের উন্নতির সাথে সাথে হয়েছে মানব সভ্যতার উন্নতি। আমাদের যা কিছু নান্দনিক, সৌন্দর্যময় তার নেপথ্যে রয়েছে গণিতের সঠিক প্রয়োগ। গণিতকে আমরা ভীতিকর বিষয় হিসেবে মনেকরি। তবে ভীতি থাকলেও গণিত ছাড়া জীবন চলে না। সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে গণিতের জ্ঞান অপরিহার্য। যে জাতি গণিতে যত বেশি পারদর্শী, সেই জাতির নেতৃত্ব দেয়ার সম্ভাবনাও তত বেশি।
বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী আয়েশা হক শিমুর সঞ্চালনায় ও গণিত মিলনমেলার আহবায়ক অধ্যাপক আমিরুল মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর মো. এমদাদুল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় গণিত বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আমান উল্লাহ। বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অসীম কুমার দে, দৈনিক আজাদীর সহযোগী সম্পাদক শিশু সাহিত্যিক রাশেদ রউফ, অ্যালামনাই এসোসিয়েশনে সভাপতি ড. মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম স্বপন এবং গণিত মিলনমেলার সদস্য সচিব মো. মাজহারুল হক।
অনুষ্ঠানে চবি গণিত বিভাগের প্রয়াত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালনা করা হয়।