অজিতকুমার গুহ : রবীন্দ্রসাহিত্যের কীর্তিমান লেখক

মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর, ২০১৯ at ১০:২১ পূর্বাহ্ণ
8

অজিতকুমার গুহ বিশিষ্ট লেখক, বুদ্ধিজীবী ও শিক্ষাবিদ। রবীন্দ্র-সাহিত্যের একজন গবেষক হিসেবেও তিনি সুপরিচিত। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের প্রতি ছিল তাঁর গভীর অনুরাগ। মহান ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণের জন্য একাধিকবার কারাভোগ করেছেন। আজ তাঁর অর্ধশত মৃত্যুবার্ষিকী।
অজিতকুমার গুহের জন্ম ১৯১৪ সালের ১৫ই এপ্রিল কুমিল্লার সুপারিবাগানে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে উচ্চশিক্ষা নিয়ে দু বছর শান্তিনিকেতনে ছিলেন। এ সময় তিনি রবীন্দ্র সাহিত্য নিয়ে ব্যাপক অধ্যয়নের সুযোগ পান। ১৯৪২ সালে দেশে ফিরে পেশা হিসেবে বেছে নেন শিক্ষকতাকে। কর্মজীবনের শুরু ঢাকার প্রিয়নাথ হাইস্কুলে। পরবর্তীসময়ে জগন্নাথ কলেজে দীর্ঘকাল শিক্ষকতা করেছেন। মাঝখানে এক বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশে ধর্মনিরপেক্ষ ও অসামপ্রদায়িক রাজনীতির চর্চা ও প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করেছেন তিনি। রবীন্দ্র সাহিত্যের পাশাপাশি শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়েও রচনা করেছেন বহু প্রবন্ধ।
কালিদাসের ‘মেঘদূত’, বঙ্কিমচন্দ্রের ‘কৃষ্ণকান্তের উইল’, রবীন্দ্রনাথের ‘গল্পসমগ্র’, ‘সোনার তরী’, ‘গীতাঞ্জলি’ প্রভৃতি গ্রন্থের জ্ঞানগর্ভ ভূমিকা সহ সম্পাদনা তাঁর উল্লেখযোগ্য কীর্তি। মৌলিক গ্রন্থ রচনা ও সম্পাদনা – সবটাতেই লেখকের আধুনিক দৃষ্টিভঙ্গি, প্রজ্ঞা ও মননশীলতার পরিচয় মেলে। ১৯৬৯ সালের ১২ই নভেম্বর অজিতকুমার গুহের জীবনাবসান ঘটে।

x