বন্দে আলী মিয়া : শিশু পাঠের নিপুণ শিল্পী

সোমবার , ১৭ জুন, ২০১৯ at ৫:১৬ পূর্বাহ্ণ
25

বন্দে আলী মিয়া – বিশিষ্ট কবি, কথাসাহিত্যিক ও সম্পাদক। কবিতায় ও গদ্যে সরস শিশুপাঠ্য গ্রন্থ রচনা করে তিনি সাহিত্যে সনিষ্ঠ অবদান রেখেছেন। ছবি আঁকায়ও তাঁর নিপুণ শিল্পী মনের পরিচয় মেলে। আজ তাঁর ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী। বন্দে আলী মিয়ার জন্ম ১৯০৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর পাবনার রাধানগর গ্রামে। পাবনার মজুমদার একাডেমি থেকে ১৯২৩ সালে মাধ্যমিক পাস করে কলকাতা আর্ট একাডেমিতে ভর্তি হন। কিন্তু আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয় নি। ১৯২৫ সালে ‘ইসলাম দর্শন’ পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে যোগদানের মাধ্যমে তাঁর কর্মজীবনের সূচনা।
এরপর দীর্ঘ পনেরো বছর শিক্ষকতা করেছেন কলকাতা করপোরেশন স্কুলে। দেশ বিভাগের পরবর্তী সময়ে শিশুতোষ পত্রিকা ‘শিশুবার্ষিকী’, ‘কিশোর পরাগ’, ‘জ্ঞানের আলো’ ইত্যাদি পত্রিকা সম্পাদনায় নিবিষ্ট হন। বন্দে আলী মিয়া ঢাকা ও রাজশাহী বেতারেও কাজ করেছেন। তাঁর কাব্যে ব্যঞ্জনাময় অভিব্যক্তি পেয়েছে আবহমান বাংলার প্রাকৃতিক রূপ বৈচিত্র্য।
তাঁর উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘ময়নামতির চর’, ‘অনুরাগ’ প্রভৃতি। ‘চোর জামাই’, ‘মেঘকুমারী’, ‘মৃগপরী’, ‘বোকা জামাই’, ‘কামাল আতাতুর্ক’, ‘কুঁচবরণ কন্যা’, ‘ডাইনী বউ’, ‘রূপকথা’, ‘শিয়াল পণ্ডিতের পাঠশালা’, ‘ছোটদের নজরুল’ ইত্যাদি তাঁর শিশুতোষ গ্রন্থ। শিশুমনের জন্য চমৎকার উপযোগী এই গ্রন্থগুলো তাঁকে শিশু সাহিত্যিক হিসেবে সমাদৃত করেছে।শিশু সাহিত্যে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য বন্দে আলী মিয়া বাংলা একাডেমি পুরস্কার ও প্রেসিডেন্ট পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৭৯ সলের ১৭ জুন কবি প্রয়াত হন।

x