দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়

লিসবনে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনায় বক্তারা

মো. রাসেল আহম্মেদ, লিসবন (পর্তুগাল) থেকে | মঙ্গলবার , ২৩ আগস্ট, ২০২২ at ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়।

পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের একটি রেস্তোরাঁয় সম্প্রতি পর্তুগাল আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনায় বক্তারা একথা বলেন।

পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল আলম জসিমের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসাইনের পরিচালনায় উক্ত শোকসভায় বক্তারা আরো উল্লেখ করেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যা করার জন্য ২৩ বারের বেশী চেষ্টা করা হয়েছে।

দেশের মানুষের ভালোবাসায় এবং আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের ত্যাগের বিনিময়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশের উন্নয়ন সহ মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন।

শোকসভায় উপস্থিত ছিলেন পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বিল্লাল রেজ, দপ্তর সম্পাদক জাকির হোসাইন, প্রচার সম্পাদক রেজাউল বাসেত, সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল ফকির।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা বেগম পারসিয়া, সোহেল খান, জামাল উদ্দিন, যুবলীগ নেতা তানভীর আলম জনি, খ.ই. ফাহাদ, সাইফুল ইসলাম শামস, ছাত্রলীগ নেতা একরাম রেজা, নোমান হোসেন, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ডালিম খান, পর্তুগাল আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন, রিয়াদ হোসাইন, উজ্জল তাপাদার, লাল মিয়া, মোস্তাফিজুর রহমান, সাব্বির আহমদ, মোহাম্মদ মিজান, যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া, মিনহাজুল অবি, তুষার, সাবেক ছাত্রনেতা শামসুল ইসলাম দলা সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।