সাইকেল চালাতে দেয়ার লোভ দেখিয়ে অপহরণ

চন্দনাইশ প্রতিনিধি | শনিবার , ১৪ মে, ২০২২ at ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ

চন্দনাইশ উপজেলার জোয়ারা ইউনিয়নের নগরপাড়া থেকে অপহরণের ২ দিন পর সিফাতুল ইসলাম রায়হান (১৪) নামে এক শিশুকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নগরপাড়া এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, উপজেলার জোয়ারা ইউনিয়নের নগরপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী নুরুল ইসলামের শিশু পুত্র সিফাতুলকে সাইকেল চালাতে দেয়ার লোভ দেখিয়ে গত ১০ মে সন্ধ্যায় অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী এলাকা পশ্চিম পাড়ার মো. জাবেদ নামে এক যুবক ও তার অপর দুই বন্ধু। রায়হানকে অপহরণের পর গত ১১ মে সকালে একটি মোবাইল নাম্বার থেকে ফোন করে জানায় সিফাতুল আহত হয়ে ফেনীতে আছে এবং ফেনী থানায় যোগাযোগ করতে। পরবর্তীতে অপহৃত শিশুর মামাতো ভাই সেলিমুল্লাহসহ পরিবারের সদস্যরা ফেনী থানায় তার সন্ধানে গেলেও সেখানে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

পরে অপর একটি নাম্বার থেকে পুনরায় ফোন করে আবারো সিফাতুলকে নেয়ার জন্য আসতে বলে। এরপর সিফাতুলের পরিবারের লোকজন মোবাইল নাম্বার দুটি যাচাই করে একই এলাকার এমরান ও আসিফের নাম্বার বলে নিশ্চিত হয়। এমরান ও আসিফ অপহরণকারী জাবেদের বন্ধু। এরপর নুরুল ইসলাম চন্দনাইশ থানায় উপস্থিত হয়ে মৌখিক অভিযোগ জানালে চন্দনাইশ থানার একদল পুলিশ অপহরণকারী জাবেদের বাড়িতে গিয়ে তার পিতা-মাতাকে শিশু সিফাতুলকে হাজির করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এদিকে পুলিশ জাবেদের বাড়ি যাওয়ার ১২ ঘন্টা পর গত ১২ মে রাত সাড়ে ৯টার দিকে অপহৃত শিশু সিফাতুলকে জোয়ারা নগরপাড়া রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায় অপহরণকারীরা।

অপহৃত শিশু সিফাতুলের পিতা নুরুল ইসলাম জানান, তার শিশু পুত্র সিফাতুল বাড়িতে এসে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছে। ঘটনার পর থেকে অপহরণকারী জাবেদ পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

চন্দনাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন জানান, এ বিষয়ে পুলিশকে মৌখিক অভিযোগ দেয়ার পর অভিযুক্ত জাবেদের বাড়িতে পুলিশ যাওয়ার পরপর তারা শিশুটিকে ছেড়ে দেয়। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।