মিথ্যাচার বিএনপির একমাত্র সম্বল : কাদের

| সোমবার , ৫ জুন, ২০২৩ at ৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মিথ্যাচারই বিএনপির একমাত্র সম্বল। বিদেশিদের কাছে রোজ রোজ নালিশ করা ছাড়া তাদের আর কোন কাজ নেই। তিনি বলেন, ক্ষমতার ময়ূর সিংহাসন ফিরে পেতে মির্জা ফখরুল দিবাস্বপ্ন দেখা শুরু করেছেন। কিন্তু তাতে কোন লাভ হবে না। তারা বিদেশে গিয়ে আওয়ামী লীগ ও সরকারের বিরুদ্ধে শুধু নালিশ করেন। কিন্তু বিশ্বে ক্রমাগত সরকারের ভাবমূর্তি উন্নত হয়েছে। ওবায়দুল কাদের গতকাল রোববার দুপুরে শহরের নওজোয়ান মাঠে আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত আব্দুল জলিলের স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগ এই স্মরণ সভার আয়োজন করে। খবর বাসসের।

আওয়ামী লীগের নেতাদের পিছনে আজরাইল ঘুরে বেড়াচ্ছে’ সমপ্রতি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনারা জনগণের কোন সন্ধান পাননা, অথচ আজরাইলের খোঁজ পেলেন কিভাবে? মির্জা ফখরুল প্রতি রাতে শুয়ে শুয়ে স্বপ্ন দেখেন, দিবা স্বপ্নও দেখেন। তিনি স্বপন দেখেন ক্ষমতার, দেখেন ময়ূর সিংহাসনের। তিনি বলেন, বিগত ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত গণআন্দোলন গড়ে তুলতে পারেননি। আগামী জুন থেকে নভেম্বর পর্যন্তও পারবেন না। দেখতে দেখতে চলে গেছে ১৪ বছর, আন্দোলন হবে কোন বছর। মরা গাঙ্গে কখনও জোয়ার আসেনা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি’র ২৭ দফা ছিল ভুয়া, ৫৪ দল ছিল ভুয়া। এই ভুয়া দল বিএনপি’র সাথে কোন সাধারণ মানুষ নাই। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মালেকের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, খাদ্যমন্ত্রী ও নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাধন চন্দ্র মজুমদার, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, সংসদ সদস্য শহীদুজ্জামান সরকার, ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন, ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম ও আনোয়ার হোসেন হেলাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সড়ক ও সেতুমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর বিগত ৪৮ বছরে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মত দেশের গরীব মানুষের আপনজন আর কেউ হতে পারেননি। এই ৪৮ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মত সৎ, পরিশ্রমী, দক্ষ নেতা আর পাওয়া যায়নি। তাঁর মত দেশ বিদেশ থেকে এতো সম্মান আর প্রশংসা বাংলাদেশের আর কোন প্রধানমন্ত্রী অর্জন করতে পারেননি। তিনি বিশ্বে বাঙালী জাতিকে চরমভাবে সম্মানিত ও মর্যাদাশীল করেছেন।

দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতির কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, কেবল আমাদের দেশে নয়, গোটা বিশ্বের একই চিত্র। বিশ্বে নানা প্রতিকুলতার কারনে, নানা ইস্যুতে সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে গোটা বিশ্বে মূল্য বৃদ্ধি ঘটেছে। যার মূল্য বাংলাদেশকেও দিতে হচ্ছে। তবে এ পরিস্থিতি বেশী দিন থাকবে না। সব ঠিক হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ ও দেশের মানুষের কথা সব সময় ভাবেন, অর্থনীতির কথা ভাবেন, মানুষের কল্যাণের কথা ভাবেন। পুরো সময় কিভাবে মানুষের কিভাবে দেশের উন্নয়ন করা যায় সেই চিন্তায় মগ্ন থাকেন।

প্রয়াত আব্দুল জলিলের রাজনৈতিক দূরদর্শিতার কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আব্দুল জলিল জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত নওগাঁকে, নওগাঁর মানুষকে ভালোবেসে গেছেন। নওগাঁর উন্নয়নে কাজ করে গেছেন। তাঁর মত কর্মবীর ইতিহাসে খুঁজে পাওয়া কঠিন। তিনি ছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন ও বিশ্বস্ত। দুর্নীতি ও অন্যায়ের সাথে তিনি আপোষ করেননি। দুঃসময়ে তিনি আওয়ামী লীগের পতাকা তুলে ধরে রেখেছেন।

এর আগে ওবায়দুল কাদের নওগাঁ শহরের চকপ্রাণ এলাকায় প্রয়াত নেতা মোঃ আব্দুল জলিলের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ ছাড়াও তিনি শহরের সরিষাহাটির মোড়ে নবনির্মিত জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন।