জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের আত্মত্যাগ হৃদয়ে ধারণ করতে হবে

রবিবার , ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় গতকাল ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতি সৌধে পুস্পমাল্য অর্পণ করে দেশ ও জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। পরে উপাচার্র্য চবি বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বুদ্ধিজীবী স্মৃতি সৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চবি শিক্ষক সমিতি, অনুষদসমূহের ডিনবৃন্দ, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, সভাপতি-পরিচালক ফোরাম, অফিসার সমিতি, চবি ক্লাব (ক্যাম্পাস), সমন্বয় কর্মকর্তা বিএনসিসি, চবি ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজ, কর্মচারি সমিতি, কর্মচারি ইউনিয়ন, সাংবাদিক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ সহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনসমূহ। কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো ব্যাজ ধারণ ও বঙ্গবন্ধু চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের অবদান’ শীর্ষক আলোচনা সভা। এতে সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।
উপাচার্য বলেন, ইতিহাসের সবচেয়ে ঘৃণ্যতম, নৃশংস, নির্মম, ন্যক্কারজনক ঘটনা হলো বুদ্ধিজীবী হত্যা। বুদ্ধিজীবীরা দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির পথ প্রদর্শক। পরাজয় নিশ্চিত জেনে স্বাধীনতার পরেও যেন বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে সেই নীল নকশা বাস্তবায়নে দেশকে মেধাশূন্য করতে রাজাকার-আলবদরসহ দেশীয় দোসরদের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় হায়নার দল এই নির্মম হত্যাকান্ড সংঘটিত করে। উপাচার্য জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের এই মহান আত্মত্যাগ সকলকে হৃদয়ে ধারণ করে সকলের কাঙ্খিত বুদ্ধিবৃত্তিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে নিবেদিত প্রাণে স্ব স্ব অবস্থান থেকে দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নুর আহমদ। বক্তব্য রাখেন চবি কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, চবি শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সহিদ উল্যাহ ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী, সিনেট সদস্য প্রফেসর বেনু কুমার দে, শহীদ আবদুর রব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. এ কে এম মাঈনুল হক মিয়াজী, সংগীত বিভাগের সভাপতি প্রফেসর সুকান্ত ভট্টাচার্য, অফিসার সমিতির সভাপতি এ কে এম মাহফুজুল হক, চবি ক্লাব (ক্যাম্পাস ও শহর)-এর পক্ষে সুলতানা সুকন্যা বাশার, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, চবি-এর সাধারণ সম্পাদক মশিবুর রহমান, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মো আনোয়ার হোসেন ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো আবদুল হাই। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবন সমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়।
সিভাসু

বিনম্র শ্রদ্ধায় চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) গতকাল শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচির মধ্যে ছিল কালো ব্যাজ ধারণ, কালো পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, শোভাযাত্রা, পুষ্পাঞ্জলি প্রদান এবং শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত। উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশের নেতৃত্বে শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন। শোভাযাত্রা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকটস্থ পাহাড়তলী বধ্যভূমিতে ফুল দিয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য , শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম, কর্মচারী ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. জান্নাতারা খাতুন, পোল্ট্রি রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর ড. পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম, ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এসিউরেন্স সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. কবিরুল ইসলাম খান, পরিচালক (গবেষণা ও সম্প্রসারণ) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, পরিচালক (ছাত্রকল্যাণ) প্রফেসর ড. মেজবাহ উদ্দিন, প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথ, ভেটেরিনারি ক্লিনিক্‌স-এর পরিচালক প্রফেসর ড. ভজন চন্দ্র দাস এবং পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) মো. আবুল কালাম প্রমুখ।
চুয়েট

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) মহান শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন চুয়েট পরিবার। গতকাল চুয়েটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। শ্রদ্ধা নিবেদনকালে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম, যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহম্মদ, ম্যাটেরিয়াল সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. কাজী দেলোয়ার হোসেন, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক, শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট ড. মোহাম্মদ কামরুল হাছানসহ চুয়েট পরিবারের অন্যান্য সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। পরে শিক্ষকমণ্ডলী, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে চুয়েট স্বাধীনতা চত্ত্বর থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত মৌনমিছিল করা হয়। এ সময় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে মোমবাজি প্রজ্জ্বলন করা হয়।
মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগ

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের ঊষালগ্নে বাঙালি জাতিসত্তার মানবসম্পদ বুদ্ধিজীবীদের হত্যা ইতিহাসের একটি কলংকিত অধ্যায় রচনা করেছে। পৃথিবীতে এরকম কোন মানবতাবিরোধী ঘটানার নজির নেই। আমাদের সন্তানদের শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানিয়ে তাদের মধ্যেও ঘৃণা সৃষ্টি করতে হবে। এই ঘৃণার মধ্যদিয়ে নতুন প্রজন্ম পরিশুদ্ধ হবে। গতকাল তার বাসভবনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর নীলু নাগের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মমতাজ খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মালেকা চৌধুরী, হাসিনা আকতার টুনু, হুরে আরা বিউটি, লায়লা আক্তার এটলী, শারমিন ফারুক, আয়েশা আলম, ফাতেমা আকতার, ঝর্ণা বড়ুয়া, আয়েশা আক্তার পান্না, ইশরাত জাহান, মনোয়ারা বাহাদুর, আয়েশা ছিদ্দিকা, জেনিফার, শিরীন আক্তার শিল্পী, আফরিন জাহান, মনিষা, কান্তা ইসলাম, আফরোজা খানম, আফরিন জাহান, নাসিমা বেগম, শাহীন ফেরদৌস, শবনম ফেরদৌস, সোনিয়া কবির, শিল্পী বড়ুয়া প্রমুখ। শহীদ বু্‌দ্িধজীবী দিবসে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
নগর যুবলীগ

আওয়ামী যুবলীগ মহানগর শাখার উদ্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মহানগর যুবলীগ নেতৃবৃন্দ। এসময় শহীদ বুদ্ধিজীবিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা ও আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করা হয়। পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের পর শহীদ মিনারের পাদদেশে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মো. মহিউদ্দিন বাচ্চুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, বাঙালি জাতিস্বত্ত্বাকে বিলীন করার জন্য জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হত্যা করা হয়েছে। ঘাতকরা মনে করেছিল জাতির মেধাবী সন্তানদের হত্যা করে বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করা হবে। তিনি বলেন উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে তবেই শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার শান্তি পাবে।
মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকার সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ, মাহবুবুল হক সুমন, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন আজাদ, হাসান মুরাদ বিপ্লব, মাহাবুব আলম আজাদ, নেছার আহমেদ, আবু সাঈদ জন, হেলাল উদ্দিন, আবদুর রহিম, নুরুল আনোয়ার, সাবের আহমেদ, প্রবীর দাশ তপু, আবদুল আজিম, আবদুল আওয়াল, খোকন চন্দ্র তাঁতী, শেখ নাছির আহমদ, ওয়াসিম উদ্দিন, মো. কফিল উদ্দিন, হোসেন সরওয়ার্দ্দী সরওয়ার, তানভীর আহমদ দীপু, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে নজরুল ইসলাম, আবুল বশর, আতিক উল্লাহ, জামাল উদ্দীন রাজু প্রমুখ।
ইউএসটিসি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (ইউএসটিসি), ইন্সটিটিউট অব এ্যাপ্লাইড হেলথ সায়েন্স (আইএএইচএস), বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল (বিবিএমএইচ) ও আনোয়ারা নুর নার্সিং ইন্সিটিটিউট (এএনএনআই)-এর যৌথ উদ্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবি উপলক্ষে কালো পতাকা উত্তোলন, বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্বে পুস্পস্তবক অর্পণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পুস্পস্তবক অর্পণ কালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপ উপাচার্য প্রফেসর ড. নুরুল আবছার, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মাসুদুল আলম চৌধুরী, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) দিলীপ কুমার বড়ুয়া, মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মুনির আহসান খান, সহকারী অধ্যাপক ডা. সত্যজিত রায়, প্রক্টর কাজী নুর-ই-আলম সিদ্দিকী, ফার্মেসী বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়রারম্যান আবদুল মোতলেব ভুইয়া এবং ইংরেজী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. আবদুর রশিদ প্রমুখ।
চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের চেতনা অন্তরে ধারণ করে সৃষ্টিশীল বাংলাদেশ গড়তে আগামি প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির (সিআইইউ) উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, ইতিহাসের এই ঘৃণ্য হত্যাকান্ডের স্মৃতি এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশকে মাথা তুলে দাঁড়াতে বারবার স্মরণ করিয়ে দেবে। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের আত্মত্যাগ যুগ যুগ ধরে নতুন প্রজন্মের ভেতর ছড়িয়ে দিতে উদ্যোগ নিতে হবে আমাদের। গতকাল শনিবার নগরের জামাল খানের সিআইইউ ক্যাম্পাসের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য। এই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। শুরুতেই বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে একমিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্স এর ডিন অধ্যাপক কাজী মোস্তাইন বিল্লাহ, বিজনেস স্কুলের ডিন ড. নাঈম আবদুল্লাহ, উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আইয়ুব ইসলাম, অধ্যাপক ড. নুরুল আবসার নাহিদ, স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন ড. আসিফ ইকবাল, স্কুল অব ল’র সহকারি ডিন মোহাম্মদ আকতারুল আলম চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক নসিহ্‌ উল ওয়াদুদ আলম, রাশেদা ফেরদৌস, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা প্রমুখ।
বোয়ালখালী খেলাঘর

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে বোয়ালখালী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে খেলাঘর বোয়ালখালী উপজেলা কমিটি । এসময় উপস্থিত ছিলেন খেলাঘর বোয়ালখালী উপজেলা কমিটির সভাপতি আবুল ফজল বাবুল, নারী নেত্রী জেবুন নাহার, দিশারী খেলাঘর আসরের উপদেষ্ঠা শ্যামল বিশ্বাস, গোলাম মোস্তফা মেম্বার, আসরের সভাপতি জামাল আবদুল নাসের, সাধারণ সম্পাদক শ্রীচরণ বিশ্বাস, জান্নাতুল ফেরদৌস, প্রিয়া নাথ, পুজা শীল প্রমুখ।
ফুলকি সহজপাঠ বিদ্যালয়

যথাযোগ্য মর্যাদায় ফুলকি সহজপাঠ বিদ্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয়েছে। গতকাল বিদ্যালয়ের এ কে খান স্মৃতি মিলনায়তনে কর্মসূচিতে বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ও সকল শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন। শুরুতে শিক্ষার্থীরা শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে সঙ্গীত পরিবেশন করেন। এরপর তৃতীয় শ্রেণির আয়মান তাহনিফ ভূঁইয়া ও চতুর্থ শ্রেণির তসিনুভা আজাদ বুদ্ধিজীবী দিবস নিয়ে আলোচনা করেন। শিক্ষক সাজ্জাদুল হক এ দিবসের উপর বক্তব্য প্রদান করে বলেন ‘শহীদ বুদ্ধিজীবীদের কথা আমাদের স্মরণ রাখতে হবে। আর আজকের তোমরা, যারা ভবিষ্যতের বুদ্ধিজীবী তোমরাই একদিন সোনার বাংলা গড়ার কাজটি করবে।’ পরে একটি তথ্যচিত্র মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরে প্রদর্শন করা হয়।
কক্সবাজার সরকারি কলেজ

কক্সবাজার সরকারি কলেজে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে গতকাল কলেজ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদ্‌যাপন কমিটির আহ্বায়ক মো. হারুন অর রশীদের সভাপতিত্বে এবং প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক মধুছন্দা দেওয়ানজীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র ধর্মগ্রন্থসমূহ হতে পাঠ করা হয়। সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এ.কে.এম ফজলুল করিম চৌধুরী। প্রধান আলোচক তাঁর বক্তব্যে বুদ্ধিজীবীদের আত্মত্যাগকে সার্থক করার লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে আত্মনিয়োগ করার আহ্বান জানান। বিশেষ আলোচক ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর পার্থ সারথি সোম, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মফিদুল আলম। স্বাগত বক্তব্য দেন হিসাববিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নেছারুল হক। বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, অধ্যাপক মোহাম্মদ মুজিবুল হক চৌধুরী, প্রভাষক মিঠুন চক্রবর্তী প্রমুখ।
চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে গতকাল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সকাল ১০টায় শহীদ মিনারের বেদিতে ফুল দিয়ে দিনের কর্মসূচির সূচনা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রফেসর মুহাম্মদ শামসুল আলম। প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যক্ষ প্রফেসর স্বপন চৌধুরী। তিনি ছাত্রীদের শহীদ বুদ্ধিজীবীদের ত্যাগের আদর্শে নিজেদের তৈরি করে আগামীর বাংলাদেশ গঠনে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। আলোচনা অংশ নেন প্রফেসর সালমা রহমান ও জাহিদ মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপাধ্যক্ষ প্রফেসর তাহমিনা আক্তার নূর ও শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মোহাম্মদ নূরুল কাদের।
হাটহাজারী উপজেলা পরিষদ

হাটহাজারীতে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস পালন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্প শ্রদ্ধা নিবেদন ও বিশেষ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউএনও মোহাম্মদ রুহুল আমীন। এতে অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোক্তার বেগম মুক্তা, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল আলম, উপজেলা স্বাস্থ্য প.প কর্মকর্তা ডা: এ এসএম ইমতিয়াজ হোসাইন, গড়দুয়ারা ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার মোরশেদ তালুকদার, থানার ওসি মুহাম্মদ মাসুম আলম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমাজকর্মী গৌবিন্দ প্রসাদ মহাজন ও প্রধান শিক্ষক শিমুল কান্তি মহাজন। সভায় বক্তারা বলেন, বিজয়ের দিনের মাত্র দুই দিন পূর্বে পাকবাহিনী জাতিকে মেধা শূন্য করার জন্য এ দেশীয় দোসরদের সহায়তায় বুদ্ধিজীবীদের অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। বুদ্ধিজীবীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তাদের আত্মার শান্তি জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে এগিয়ে নিতে হবে। তাছাড়া পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাটহাজারী সার্কেলের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্প শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রাম কলেজ ইউনিট

যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের সহযোগিতায় গতকাল যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম কলেজ ইউনিট কলেজ ক্যাম্পাসে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম কলেজ ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজমুল হকের সভাপতিত্বে কার্যক্রম উদ্বোধন করেন, চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ মুজিবুল হক চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ মোজাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ফরিদ আহমদ। উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষকবৃন্দ। আরো উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন যুব প্রধান মোঃ শরিফুল ইসলাম। কার্যক্রমের সার্বিক পরিচালনা করেন যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম কলেজ ইউনিটের যুব প্রধান সুজিত রুদ্র।
চট্টগ্রাম সরকারি কমার্স কলেজ

চট্টগ্রাম সরকারি কমার্স কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে গতকাল এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কলেজ ছাত্র সংসদে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাব্বির চৌধুরীর সভাপতিত্বে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মাকসুদুর রহমান হৃদয়, আতুল রাজু, মো. আরিফ, ইয়ামিন মুন্না, আব্রাহাম ইমু, মো. ইসমাইল, মো. সাকিব, মো. শাহবাজ, জয় বিশ্বাস, মো. সৌরভ। এসময় উপস্থিত ছিলেন আরিফুল ইসলাম, আরফাত আকিব, মোহাম্মদ হাসান বিন ইব্রাহিম, কাইছার উদ্দিন জোবায়ের, মেহেরাব হোসেন রাফায়েত, প্রণয় দাশগুপ্ত, সামিদ সৌরভ, ইকরাম বাদশা, সোহেল চৌধুরী, নাঈম চৌধুরী, আবির আহমদ, মিজানুল ইসলাম, মো. জোবায়ের, মো. সালিম, ফাহিম মেজবাহ, মো. পাভেল, তানভীর আহমদ, মো. হিমেল, মো. যুবরাজ, মো. রাজ, দীপ্ত বড়ুয়া, অরিত্র, সামিরুল, আরিফ, অভি মিত্র, সম্রাট ও ইসান প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x