চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন ১ অক্টোবর

আগে সকল ইউনিট ও ওয়ার্ড সম্মেলন শেষ করার নির্দেশন

আজাদী প্রতিবেদন | বুধবার , ২৫ মে, ২০২২ at ৪:৩০ অপরাহ্ণ

অবশেষে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১ অক্টোবর চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

তার আগে সকল ইউনিট ও ওয়ার্ড সম্মেলন শেষ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয়ভাবে ঘোষিত তৃণমূল পর্যায়ে দলকে গতিশীল করতে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযান এবং ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি এই ঘোষণা দেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ১ অক্টোবর চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব আসবে। দলের যোগ্য লোকদের যোগ্য জায়গায় নিয়ে আসতে হবে। যোগ্য লোকদের মাঠ থেকে খুঁজে বের করতে হবে।

আর যারা সারাদিন নেতাদের চারপাশে ঘুরঘুর করে এই তেল বাজদের দলে আসতে দেয়া যাবেনা। তারা সুযোগ সন্ধানী। ওয়ার্ড ইউনিটে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে সম্মেলন শেষ করতে হবে।

আজ বুধবার সকাল ১০টায় কাজীর দেউরীস্থ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মহানগর আওয়ামী লীগের ইউনিট পর্যায়ে সদস্য নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন এমপি।

প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আয়োজন করতে হবে, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আয়োজন করতে হবে। সুদূর পাহাড়ে তিন জেলার সম্মেলন হয়েছে। আজকে বাবু ভাই (দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু) নেই, দক্ষিণ জেলার সম্মেলন হয়না অনেক দিন।

প্রধানমন্ত্রী আমার কাছে জানতে চেয়েছেন- সব জায়গায় সম্মেলন হয় চট্টগ্রামে কেন সম্মেলন হয় না? দক্ষিণ জেলায় সম্মেলন আয়োজন করতে হবে। মহানগরে সম্মেলন আয়োজন করতে হবে। সম্মেলনের মাধ্যমে দুঃসময়ের কর্মীদের কাছে আনতে হবে। আওয়ামী লীগের মধ্যে যেসব দুষিত রক্ত আছে সেগুলো বের করে দিতে হবে।

ওবায়দুল কাদের চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক চার লেইনের কাজ শুরু হওয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, জাপানের অর্থায়নে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক চার লেইনের কাজ শুরু হবে। জাপানের সাথে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত কথা হয়েছে।
সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ বক্তা ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বে) ও জাতীয় সংসদ হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এম.পি, বিশেষ অতিথি ছিলেন, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক বেগম ফরিদুনন্নাহার লাইলী, অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক বেগম ওয়াসিকা আয়শা খান এম.পি, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এম.পি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, এড. সুনীল সরকার, কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, নোমান আল মাহমুদ, শফিকুল ইসলাম ফারুক, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, জহরলাল হাজারী, শফর আলী, রোটারিয়ান হাজী মোহাম্মদ ইলিয়াছ, মোহাম্মদ হোসেন, আবু তাহের, ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, শহীদুল ইসলাম।
মঞ্চের সামনে সাংসদ এম এ লতিফ সহ আওয়ামী লীগের থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিটের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।