ইউক্রেনে ফের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা রাশিয়ার

| বুধবার , ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ at ৫:০৮ পূর্বাহ্ণ

ইউক্রেনের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে ফের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। হামলায় অন্তত চারজন নিহত হয়েছেন। ধ্বংস হয়ে গেছে অনেক বাড়িঘরসহ জরুরি স্থাপনা। এ অবস্থায় সেখানে ফের ইমারজেন্সি ব্লাকআউটের কথা জানিয়েছে দেশটির সরকার। ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, সোমবারের রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর পাওয়ার গ্রিড স্থিতিশীল করতে ইউক্রেনে জরুরি শাটডাউন জারি করা হয়েছে। তিনি বলেন, হামলায় অনেক অঞ্চল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আগামী কয়েক দিন কিয়েভের প্রায় অর্ধেক এলাকা বিদ্যুৎবিহীন থাকবে। খবর বাংলানিউজের।

এর আগে গত সপ্তাহে ইউক্রেনে টানা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রাশিয়া। হামলায় ধ্বংস হয়ে যায় দেশটির জরুরি সেবা সরবরাহ করা বিভিন্ন স্থাপনা। বিদ্যুৎ ও পানি ছাড়া দিন কাটাতে হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের। ব্ল্যাকআউটে চলে যায় বেশ কয়েকটি অঞ্চল। সেই সংকট কাটিয়ে উঠতে না উঠতে আবারও হামলা চালালো রাশিয়া।

বর্তমানে ইউক্রেনের অনেক অঞ্চলে তুষারপাত হচ্ছে। বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ ছাড়া লাখ লাখ মানুষ দিন পার করছেন। এমন অবস্থায় বহু মানুষ হাইপোথার্মিয়ায় মারা যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে দেশটির সরকার। স্থানীয় সময় সোমবার গভীর রাতে এক ভিডিও বার্তায় ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, সোমবার ৭০টি রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছিল। এগুলোর বেশিরভাগই প্রতিহত করা হয়।

এদিকে হামলার রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উচ্চ-নির্ভুল অস্ত্রের মাধ্যমে এই হামলা চালানো হয়। ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নির্ধারিত ১৭টি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করেছে। তিনি বলেন, সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লক্ষ্যবস্তু ছিল ভিন্নিতসিয়া, কিয়েভ, জাইটোমির, ডিনিপ্রপেট্রোভস্ক, ওডেসা, খমেলনিটস্কি ও চেরকাসি অঞ্চলে। এদিকে রাশিয়া এই কর্মকাণ্ড সমগ্র অঞ্চলের জন্য হুমকিস্বরূপ দাবি করে জেলেনস্কি বলেন, ক্ষেপণাস্ত্র হামলা মোলে্দা‌ভার বিদ্যুৎ সরবরাহেও প্রভাব ফেলেছে। উল্লেখ্য, সোমবারের হামলা আট সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়ার অষ্টম বড় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা।