৯ ডিসেম্বর হচ্ছে না নগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ at ৩:২৮ পূর্বাহ্ণ
936

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগে মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হচ্ছে না। মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের জন্য কেন্দ্র থেকে আগামী ৯ ডিসেম্বর দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছিল। কিন্তু তার আগে নগরীর ওয়ার্ড ও থানা সম্মেলন সম্পন্ন না হওয়া এবং অভ্যন্তরীণ গ্রুপিংসহ নানা জটিলতার কারণে শেষ পর্যন্ত কেন্দ্র থেকে আগামী ৯ ডিসেম্বর নগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। তবে চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন যথারীতি আগামী ৭ ও ৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ.কে.এম. এনামুল হক শামীম।
নগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে উল্লেখ করে এ.কে.এম. এনামুল হক শামীম আজাদীকে বলেন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন আপাতত হচ্ছে না। আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পরেই হবে। আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয়
সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এর আগেই দেশের সকল উপজেলা, থানা-জেলা ও মহানগর সম্মেলন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বারবার নগরীর ওয়ার্ড সম্মেলনের তারিখ ঠিক করার পরও নগর আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড ও থানা সম্মেলন সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি। তাই নগর সম্মেলনের দিনক্ষণও পেছাল।
এই ব্যাপারে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন আজাদীকে বলেন, সম্মেলনের ব্যাপারে আমি গত ১৩ তারিখ (১৩ নভেম্বর) কাদের ভাইকে (আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের) জিজ্ঞেস করেছিলাম। কাদের ভাই বলেছেন আপাতত থাক। কাদের ভাই আবার চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীমের সাথেও কথা বলেছেন। আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন এবং পরবর্তীতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগে তাহলে তো মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হচ্ছে না-এমন প্রশ্নের জবাবে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেন, অনেকটা তা-ই।
মেয়র আ.জ.ম. নাছির বলেন, আমি তো প্রস্তুত আছি-সম্মেলনের জন্য। যখনই সেটা করতে বলেছেন আমি সেটা করার উদ্যোগ নিয়েছি। ধারাবাহিক ওয়ার্ড সম্মেলনের জন্য আমি তারিখও ঘোষণা করেছিলাম। কিন্তু সেটা আবার স্থগিত করা হয়েছে। এখন উনারা (কেন্দ্র থেকে) যখন চান তখনই হবে।
জানা গেছে, মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ২০০৬ সালে। তবে কমিটি হয় ২০১৩ সালে। অনেক আগের সম্মেলনের ৭১ সদস্যের সর্বশেষ কমিটি হয় ২০১৩ সালের ১৪ নভেম্বর।
২০১৭ সালের ডিসেম্বরে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী মারা গেলে পরবর্তীতে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করা হয় মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীকে। এদিকে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়েছিল ২০১২ সালের ডিসেম্বরে। ২০১৩ সালের প্রথমদিকে ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। অপরদিকে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছিল ২০১৪ সালে। মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত ওই কমিটিই বহাল আছে।

x