৫ বয়োঃবৃদ্ধের জন্য ব্যক্তি উদ্যোগে বয়স্ক ভাতা চালু পেনশনের টাকায় অসহায়দের পাশে

সমির মল্লিক : খাগড়াছড়ি

সোমবার , ২১ অক্টোবর, ২০১৯ at ৩:৩৩ পূর্বাহ্ণ
68

খাগড়াছড়ির দীঘিনালার নিভৃতপল্লী উত্তর কামাক্যুছড়া। ঘনসবুজে ঢাকা এর গ্রামের চারপাশে ছড়িয়ে রয়েছে নিসর্গ। উপজেলা সদর থেকে অন্তত ৬ কি.মি দূরে পাহাড়ের আঁকা বাঁকা পথ পেরিয়ে নির্জন বাড়ি ‘অবসর ভবন’ বা পেনশান হাউস। চারপাশে বৃক্ষরাজিঘেরা এই ‘অবসর ভবন’ প্রধান কর্তা চঞ্চল কান্তি চাকমা। গ্রামের মানুষের কাছে নাম বলতেই চঞ্চল চাকমার ‘অবসর ভবন’ এর পথ দেখিয়ে দেয়।
চঞ্চল চাকমার একটি উদ্যোগ গ্রামসহ পুরো উপজেলায় ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। অবসরে যাওয়ার পর নিজের প্রাপ্ত পেনশনের টাকায় বয়স্কভাতা চালু করেছেন তিনি। কেবল মাস বা বছর নয় সারা জীবন ৫জন বয়োঃবৃদ্ধকে মাসে ৫০০ টাকা করে বয়স্কভাতা প্রদানের সিন্ধান্ত নেন তিনি। চালু করেছে ‘বেসরকারি পর্যায়ে বয়স্কভাতা প্রদান কর্মসূচি’। এরই অংশ হিসেবে ১লা অক্টোবর বিশ্ব প্রবীণ দিবসে ৫ জনকে বয়স্ক ভাতা দেন তিনি । এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও ) উপস্থিত ছিলেন।
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এর অবসরপ্রাপ্ত হিসাব রক্ষক চঞ্চল কান্তি চাকমা’র এমন উদ্যোগ নজিরবিহীন বলছে সংশ্লিষ্টরা। সরকারি চাকুরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর প্রাপ্ত পেনশন এর থেকে অসহায় দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে চঞ্চল চাকমা। আপাতত ৫ জন দিয়ে শুরু হলেও ভবিষ্যতে এই উদ্যোগকে আরো বিকশিত করতে চান তিনি।
বেসরকারি পর্যায়ে বয়স্কভাতা প্রদান কর্মসূচি এর উদ্যোক্তা চঞ্চল চাকমা জানান,‘ আমি দুর্গম উত্তর কামুক্যছড়ায় বেড়ে উঠেছি। অর্থের অভাবে বেশিদূর পড়াশোনা করতে পারি নাই। ১৯৭৫ সালে দীঘিনালা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেছি। পরবর্তীতে ১৯৭৯ সালে সরকারি চাকরিতে যোগদান করি। ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর রাঙামাটির মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের হিসাবরক্ষক হিসেবে অবসরে যায়। মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে কিছু একটা ইচ্ছে ছিল। এতদিন সামর্থ্যের অভাবে সম্ভব হয়নি। তিনি আরো বলেন,‘ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চাকরি শেষ হবার পর অবসরভাতা পান। কিন্ত গ্রামের শ্রমজীবী দরিদ্র জনগোষ্ঠী জীবনের শেষ প্রান্তে এসে মানবেতর জীবন যাপন করে। অসহায়ভাবে জীবন যাপন করে। এসব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্যই ৬৫ বছরের উর্ধ্বে ৪ নারী ও ১ জন পুরুষের জন্য মাসিক ৫শ টাকা হারে আজীবন বয়স্কভাতা প্রদান করছি। প্রতিমাসের শুরুতে এই ভাতা প্রদান করা হবে। ’
এসময় চঞ্চল চাকমার স্বজনরা জানান,‘ ব্যক্তি উদ্যোগে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্যই তিনি এই বয়স্ক ভাতা চালু করেছেন। এতে গ্রামের অন্তত ৫ জন মানুষ উপকৃত হচ্ছে। মানুষের জন্য কিছু করার তাগিদ থেকেই তিনি বয়স্কদের জন্য ভাতা চালু করেছেন। ’
বয়ষ্ক ভাতা প্রাপ্তদের একজন বিমলাদেবী চাকমা। বয়স প্রায় ৭১ বছর। তিনি সরকারিভাবে বয়স্ক ভাতা পান না। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে বিমলার বাড়ি গেলে তিনি হাসিমুখে বলেন,‘ চঞ্চল চাকমা আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। মাসের শুরুতে ৫শ টাকা বয়স্ক ভাতা দিয়েছে। সেই টাকা দিয়ে নিজের ওষুধ কিনেছি। ’ একই গ্রামের বাসিন্দা নাগরি চাকমা । বয়স প্রায় ৬৭। তার বাড়ি গিয়ে দেখা যায় চারপাশে অভাবের ছাপ। স্বামী -স্ত্রী দুজনই থাকে। একমাত্র সন্তান পরিবার নিয়ে রাঙামাটির মারিশ্যায় বসবাস করে। সন্তানরা এখানে আসে না। নাগরি চাকমার স্বামীর বয়স ৭০ এর উর্ধ্বে। দুজনের কেউ সরকারিভাবে বয়স্কভাতা পান না। নাগরি চাকমা জানান,‘ আমরা দুজনই বয়স্ক মানুষ। কোন সরকারি ভাতা পায়না। মেম্বার (ইউপি) সদস্যের কাছে বারবার আবেদন করেও টাকা পায়নি। এসময় তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন মঙ্গলবার (১লা অক্টোবর) চঞ্চল চাকমা আমাকে বয়স্ক ভাতা হিসেবে ৫শ টাকা প্রদান করেছে। অভাবের সংসারে এই টাকা অনেক কাজে আসবে। ’
৬নং উত্তর কামুক্যছড়া ওয়ার্ড ইউপি সদস্য শিবু রঞ্জন চাকমা জানান,‘ ওয়ার্ড ভিত্তিক বয়স্কভাতা দেওয়া হলেও তা অত্যন্ত অপ্রতুল। ফলে গ্রামের বেশীর ভাগ বয়োঃবৃদ্ধরা বয়স্ক ভাতা পান না। ফলে অনেকে সরকারি ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়।’
দীঘিনালার বোয়ালখালী ্‌ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান চয়ন বিকাশ চাকমা জানান,‘ উপজেলায় জনসংখ্যার ভিত্তিতে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির আওতায় বয়স্কভাতা প্রদান করা হয়। কিন্তু যে বরাদ্দ আসে তা অপ্রতুল। ফলে অনেকেই বঞ্চিত হচ্ছে। চঞ্চল চাকমা সরকারি চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর গ্রামের বয়স্ক মানুষের জন্য ব্যক্তি উদ্যোগে ভাতা চালু করেছে তা সত্যিই প্রশংসনীয় এবং নজিরবিহীন। বয়স্ক ভাতা পাওয়ায় গ্রামের অসহায় মানুষগুলোর উপকার হচ্ছে।’
দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ উল্ল্যাহ বলেন,‘ চাকরি জীবনের সঞ্চয় দিয়ে চঞ্চল চাকমা অসহায়দের জন্য বয়স্ক ভাতা চালু করেছেন যা সত্যিই প্রশংসনীয়। খাগড়াছড়ি মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এর উপপরিচালক মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম জানান,‘ চঞ্চল চাকমা ব্যক্তি উদ্যোগে যে বয়স্ক ভাতা চালু করেছে সেটি প্রশংসনীয় ।তবে ফাউন্ডেশান ও ট্রাস্টি প্রতিষ্ঠা করে যদি এটি চালু করত তাহলে তা আরো বেশি দীর্ঘস্থায়ী ও সুসংগঠিত হত।

x