১০০ শয্যায় উন্নীতকরণের দাবিতে মানববন্ধন

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

শনিবার , ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৮:৩১ পূর্বাহ্ণ
32

চন্দনাইশ উপজেলার প্রাচীন বাণিজ্যিক উপশহর দোহাজারী পৌর সদরস্থ দোহাজারী ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ১০০ শয্যায় উন্নীতকরণসহ প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির দাবিতে মানববন্ধন করেছে স্থানীয়রা। গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে হাসপাতালের সামনে ‘সম্মিলিত সামাজিক সংগঠনের’ ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে চন্দনাইশ-সাতকানিয়া (আংশিক) এলাকার দোহাজারী পৌরসভা, কালিয়াইশ, সাতবাড়ীয়া, খাগরিয়া, ধোপাছড়ি, ধর্মপুর, পুরানগড়, হাসিমপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেয়। চন্দনাইশ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জাফর আলী হিরুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ইঞ্জিনিয়ার মো. ইসলাম, মো. লোকমান হাকিম, ফয়েজ আহমদ টিপু, শাহ আলম মেম্বার, জামাল উদ্দীন মেম্বার, জাহাঙ্গীর মেম্বার, বিষ্ণু যশা চক্রবর্তী, রূপক কান্তি দাশ, মুন্সি আব্দুর রব সৌরভ, মো. সোলায়মান, মুহাম্মদ আব্দুল আহাদ, ওসমান আলী ভুট্টো, ওবাইদুল আকবর টুটুল, সায়ের আহমদ সায়েদ, আবু তৈয়্যব, অ্যাড. রিদুয়ানুল হক, হারুনুর রশিদ হোসাইনি, তসলিম রিজভী, এসএম ওয়াহিদ রনি, নুর হোসেন, জয়নাল আবেদীন জয়, নাজিম উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, দোহাজারী ৩১ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করেন চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী, সাতবাড়িয়া, হাশিমপুর, ধোপাছড়ি এবং সাতকানিয়া উপজেলার কালিয়াইশ, ধর্মপুর, খাগরিয়া, নলুয়া, পুরানগড়সহ আশেপাশের অসংখ্য দরিদ্র লোকজন। এছাড়া হাসপাতালটি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক লাগোয়া হওয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত রোগীরা দ্রুত চিকিৎসা নিতে এ হাসপাতালে ভর্তি হয়। এতে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম ও পর্যাপ্ত জনবল না থাকায় চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে। তাছাড়া হাসপাতালের জন্য ২০১৪ সালে একটি এম্বুলেন্স বরাদ্দ দেয়া হলেও চালকের অভাবে দীর্ঘ তিন বছর যাবত এটি গ্যারেজে অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে। জরুরি মুহূর্তে কোনো রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয় না। তাছাড়া হাসপাতাল ভবনটিও জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। শিগগিরই এর আশু সংস্কারে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।
মানববন্ধনে আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে স্থানীয় সাংসদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলেও জানানো হয়।

x