হালিশহরে র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজের উইন্টার ফেস্ট উদ্বোধন

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৬:২৩ পূর্বাহ্ণ

নগরীর হালিশহরের কে ব্লকের সিকে টাওয়ারে শুরু হয়েছে ‘র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজ’ এর ৬ দিনব্যাপী ‘উইন্টার ফেস্ট’। গতকাল শনিবার বিকেলে মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ মুসলিম, দৈনিক আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক ওয়াহিদ মালেক ও সিটি ব্যাংক চট্টগ্রামের রিজিওনাল কর্পোরেট হেড কায়েস চৌধুরী। অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে ফিতা ও কেক কেটে উইন্টার ফেস্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজের সিইও প্রকৌশলী তানভীর শাহরিয়ার রিমন। এ সময় র‌্যাংকস এফসির বাণিজ্যিক ও আবাসিক ফ্লোরের একাধিক ক্রেতা, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ও নগরীর গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
দৈনিক আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক ওয়াহিদ মালেক বলেন, হালিশহর নিয়ে চট্টগ্রামবাসীর নেতিবাচক ধারণা ছিল। এখানকার প্রধান সড়ক খোঁড়াখুঁড়ি নিয়ে অনেক ভোগান্তি ছিল। এ ভোগান্তি প্রায় শেষের দিকে। তিনি আরো বলেন, হালিশহরে র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজ বেশ কয়েকটি প্রজেক্ট হাতে নিয়েছে। আশা করছি এসব প্রজেক্টে সাফল্য আসবে এবং প্রতিষ্ঠানটি অনেকদূর এগিয়ে যাবে। আজাদী পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের জন্য শুভ কামনা।
র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজের সিইও প্রকৌশলী তানভীর শাহরিয়ার রিমন বলেন, আমরা চাই, অন্তত মেলা উপলক্ষে আমাদের গ্রাহকসহ আরো যারা আছেন, তারা হালিশহর ভিজিট করুক। হালিশহর চট্টগ্রামের বড় আবাসিক এলাকাগুলোর একটি। আমার বিশ্বাস, এটা চট্টগ্রামের বড় বিজনেজ হাব হয়ে দাঁড়াবে। আমরা যেখানে ফেয়ার করছি, এটা রেসিডেন্সিয়াল অ্যান্ড কমার্শিয়াল মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্স। প্রকল্পের কমার্শিয়াল পার্টটি আগামী ২ মাসের মধ্যে গ্রাহকদের হস্তান্তর করবো। রেসিডেন্সিয়াল পার্টটি ২০২১ সালের মাঝামাঝিতে হস্তান্তর করা হবে।
তিনি বলেন, আমাদের যারা ইনভেস্টর আছেন তাদের বলবো, ভবিষ্যতের সম্ভাবনা চিন্তা করে আপনারা মেলা প্রাঙ্গণে আসবেন। যারা গত এক-দুই বছর বিভিন্ন কারণে হালিশহর এড়িয়ে চলেছেন, তারা হালিশহরের সম্ভাবনাগুলো নিজের চোখে দেখে যাবেন। হালিশহরে গত দুই বছর ধরে রাস্তা সংস্কারের কাজ চলছিল। এজন্য হয়তো অনেকে আসতে ভয় পেতেন। কিন্তু এখন সংস্কার কাজ প্রায় শেষের দিকে।
র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজের সিনিয়র ম্যানেজার (সেলস অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট) মীর মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, হালিশহর এলাকাটি বর্তমানে চট্টগ্রামের অভিজাত এবং ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকায় পরিণত হয়েছে। র‌্যাংকস এফসির সিকে টাওয়ার প্রকল্পটি হালিশহরের যে স্থানে নির্মিত হয়েছে, তার সামনেই ১২০ ফুট রাস্তা সম্প্রসারিত হয়েছে, যা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সঙ্গে সংযুক্ত। ফলে এই টাওয়ারটি নগরীর অত্যন্ত জনবহুল, অভিজাত আবাসিক এবং বাণিজ্যিক স্থাপনা হিসেবে গুরুত্ব পাবে। এ কারণেই র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজ প্রথমবারের মতো সিকে টাওয়ার প্রকল্পে ৬ দিনের উইন্টার ফেস্ট আয়োজন করেছে। এই ফেস্ট থেকে সিকে টাওয়ারসহ র‌্যাংকস এফসির যে কোনো আবাসিক ও বাণিজ্যিক প্রকল্প থেকে ফ্ল্যাট বা ফ্লোর বুকিং দিলেই ক্রেতাদের জন্য ‘হাউজফুল অফার’ ঘোষণা করেছে র‌্যাংকস এফসি।
উল্লেখ্য, হালিশহর ছাড়াও নগরীর শেখ মুজিব রোড, মেহেদীবাগ, নাসিরাবাদ, খুলশী, পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকায় র‌্যাংকস এফসির একাধিক আবাসিক ও বাণিজ্যিক প্রকল্প নির্মাণাধীন রয়েছে। উইন্টার ফেস্টে আগ্রহী ক্রেতারা এসব প্রকল্পে ফ্ল্যাট বা কমার্শিয়াল স্পেস পরিদর্শন এবং বুকিং দিতে পারবেন। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ক্রেতাদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। যা চলবে আগামী ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

x