হাটহাজারীতে পানিবন্দি কয়েক হাজার পরিবার

হাটহাজারী প্রতিনিধি

শুক্রবার , ১২ জুলাই, ২০১৯ at ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ
31

হাটহাজারীতে গত কয়েকদিনের লাগাতার প্রবল বর্ষণে বন্যা পরিস্থিতি চরম অবনতির দিকে যাচ্ছে। উপজেলার আওতাধীন নিম্নাঞ্চলের কয়েক হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যা কবলিত এসব মানুষের খাদ্য ও সুপেয় পানির সংকট দেখা দিয়েছে। এছাড়া লাগাতার বর্ষণের কারণে সংকট দেখা দিয়েছে গবাদি পশুর খাদ্যও। পাহাড়ী ঢলের তোড়ে হাটহাজারী-নাজিরহাট মহাসড়কের পৌরসভার মুন্সির মসজিদ সংলগ্ন এলাকা এবং এনায়েতপুর কমিউনিটি ক্লিনিক সংলগ্ন এলাকা দিয়ে ঢলের পানি উপচে পড়ছে। এতে করে সড়কের এ দুইটি অংশ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে গাড়ি চলাচল করছে।
মোহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা তফাজ্জল হোসেন ফোরকান জানান, প্রবল বর্ষণের ফলে দয়াচাঁন বাড়ি সড়ক, সমদ আলী সড়ক, নুর আহম্মদ সড়ক, মোহাম্মদপুর সড়ক, মোহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সড়কসহ স্থানীয় বাড়িঘরের গ্রামীণ সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে। তাছাড়া মীর সড়ক পানিতে ডুবে যাওয়ায় স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের স্কুলে যেতে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
ছিপাতলী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ফরিদ আহম্মদ জানান, পাহাড়ী ঢল ও বৃষ্টিপাতে ছিপাতলী ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে। গ্রামীণ অনেক সড়ক ও আমন বীজতলা পানিতে তলিয়ে গেছে।
শিকারপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার লোকমান হাকিম জানান, কাপ্তাই মহাসড়কের কুয়াইশ কলেজ সংলগ্ন কুয়াইশ খালের সেতুর নিচের অংশ ময়লা-আবর্জনায় ভরে গেছে। এতে করে ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বৃষ্টির পানি ও পশ্চিম দিক থেকে আসা ঢলের পানি নিষ্কাশন হতে না পেরে এলাকার প্রায় দেড় হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তিনি উল্লেখিত সেতুর নিচে জমে থাকা ময়লা-আর্বজনা সরানোর জন্য দায়িত্বশীল প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমীন জানান, প্রবল বর্ষণের ফলে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের উদালিয়ার মনাই ত্রিপুরা পল্লীর দুই বসতঘর এলাকায় পাহাড় ধস হয়েছে। অবশ্য দুই বসতঘরের লোকজনকে গত দুইদিন আগে পাহাড় ধসের আশংকায় নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনা হয়েছে। তাদেরকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুইদিনের খাবার দেওয়া হয়েছে।

x