সড়কের কিনারা থেকেও মাটি কাটছে ইটভাটা

রাউজান প্রতিনিধি

রবিবার , ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৬:১৬ পূর্বাহ্ণ

ইটভাটার বেপরোয়া মাটি কাটার কারণে ধসে পড়ার আশংকায় রয়েছে রাউজানের শহীদ জাফর সড়ক। একই সাথে ভেঙে পড়ার হুমকিতে আছে ১১ হাজার কেবি বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের খুঁটি। স্থানীয় জনসাধারণ অভিযোগ করে বলেছেন, আটজনের একটি সিন্ডিকেট এমবিসি নামের এই ভাটাটি পরিচালনা করছে। তারা ইট তৈরির কাজে কৃষিজমি ও টিলাভূমি কেটে মাটির যোগান দিচ্ছে। যে সড়কটি ধসে পড়ার আশঙ্কার মধ্যে আছে সেই সড়কটি পাহাড় ও সমতলের মানুষের যোগাযোগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।
শহীদ জাফর সড়ক নামে পরিচিত। সড়কটির উন্নয়নে এখন একটি প্রকল্প কাজ চলমান আছে।
এলাকার লোকজন জানিয়েছে এই সড়ক পথে প্রতিদিন পাহাড় সমতলের হাজার হাজার মানুষ যাওয়া আসা করে। বিশেষ করে কৃষি পণ্য দ্রুত বাজারজাত করার কাজে সড়কটির গুরুত্ব অপরিসীম। রাউজান সদর হয়ে এটি সংযুক্ত আছে র্পা্বত্য উপজেলা কাউখালীসহ বিস্তীর্ণ পাহাড়ি অঞ্চলের সাথে। স্থানীয়দের অভিযোগ ইট তৈরির মাটির যোগান দিতে ইটভাটার সাথে জড়িতরা সড়কের পাশ ঘেঁষে থাকা কৃষিজমি ও টিলাভূমি কেটে মাটি নেওয়ায় সড়কটি ধসের আশংকার মধ্যে রয়েছে। সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায়, এখানকার তিনটি ইটভাটার মাটির উৎস টিলাভূমি ও কৃষিজমি। দেখা গেছে, বেপরোয়াভাবে মাটি কাটার ফলে অন্তত ৫০ মিটার সড়কপথ ধসে পড়ার হুমকিতে আছে।
জানা গেছে, ইতিপূর্বে উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওই ইটভাটা কর্তৃপক্ষকে মাটি কাটতে নিষেধ করেছিলেন। মাটি কাটার কারণে সড়ক পথের যে অংশটুকু ঝুঁকিপূর্ণ হয়েছে সেটি দ্রুত ভরাট করে দিতে নির্দেশও দিয়েছিলেন। কিন্তু ভাটার মালিকরা সেই নির্দেশ এখনো কার্যকর না করায় বর্ষা শুরু হলে সড়কটির একাংশ ও বিদ্যুৎ খুঁটি ধসে পড়তে পারে বলে সকলেই আশংকা প্রকাশ করছেন। রাস্তার কিনারা থেকে এভাবে মাটি কাটার কারণ জানতে চাইলে মালিকদের মধ্যে একজন মোহাম্মদ ওসমান বলেন, ‘ওই মাটি কাটা হয়েছে গত বছর। এখন নতুন করে মাটি কাটা হচ্ছে না।’

x