সোমা মুৎসুদ্দী (কোনো একদিন মুখোমুখি আমি ও অনিমেষ)

রবিবার , ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৫৯ পূর্বাহ্ণ
70

জানি না। বিপ্লবী অনিমেষ তুমি তোমার শেষ ট্রেনটি ধরতে পেরেছিলে কিনা। যেখানে আমার জীবনের ট্রেন ধরতেই বিশটি বছর কেটে গেলো।হারিয়েছি অনেক কিছু জীবন থেকে।আবার জীবনে প্রাপ্তিও যোগ হয়েছে অনেক। অনিমেষ তুমি দেশের জন্য বিপ্লব ঘটাতে চাও। আর আমি চাই কবিতার বিপ্লব ঘটাতে।তোমার আর আমার জীবনটাই তো একটা বিপ্লব।অনিমেষ তোমার মন খারাপের আকাশটা কেমন?আমার মন খারাপের আকাশে অবশ্য কালো মেঘ বেশিক্ষণ থাকে না। বৃষ্টি হয়েই ঝরে পড়ে আমার দুচোখ দিয়ে।গেলো বর্ষায় কদম ফুল দিয়েছিলে কি তোমার মাধবীলতার হাতে? আমি অবশ্য কদম পেয়েছি। কারো হাত থেকে নয়।কোনো এক ফেসবুক বন্ধুর বদৌলতে। ছবি পাঠিয়েছিল আমার ইনবক্সে।ছবিটা পেয়ে মনটাও ভালো হয়ে গিয়েছিলো। তোমাকে তোমার মাধবীলতা উৎসাহ দিক বা না দিক।আমি আমার কবিতার মাধ্যমে তোমাকে উৎসাহ দিয়ে যাবো নিরন্তর। খুব ইচ্ছে ছিলো। তোমার সাথে মুখোমুখি বসার। সামনে টেবিল, দুটো চেয়ার পাশাপাশি।হাতে চায়ের পেয়ালা।কন্ঠে তোমায় নিয়ে লেখা আমার কবিতা পাঠ। আর কবিতা শেষে কবিগুরু রবি ঠাকুরেরই কোনো গান। সব অভিমান ভুলে আমার স্বপ্ন পূরণ করে যেয়ো কোনো একদিন । এক কাপ চা। একটি কবিতা একটি গানের ও মুখোমুখি বসার। ভালো থেকো অনিমেষ।

x