সেই বিজ্ঞাপন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন আমেনা খান

বুধবার , ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ at ৭:০৬ পূর্বাহ্ণ
167

ব্রিটিশ মডেল আমেনা খান জানিয়েছেন প্রসাধনী ব্র্যান্ড ল’রিয়েলের যে ক্যাম্পেইনের কাজটি তিনি করছিলেন সেটি থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন। সম্প্রতি এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন তিনি। এ ক্যাম্পেইন ঘিরে যে কথাবার্তা উঠেছিল নিজের সরে দাঁড়ানোর জন্য সেটিকেই দায়ী করেছেন তিনি।

২০১৪ সালে আমেনার করা কিছু টুইট সামনে আসার পরই ক্যাম্পেইন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা জানালেন আমেনা। ওই টুইটগুলোকে কেউ কেউ ইসরায়েলবিরোধী বলে আখ্যায়িত করেছিলেন।

বাসস জানায়, ফ্রান্সের প্রসাধনী কোম্পানি ল’রিয়েল শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপনের জন্য গত সপ্তাহে তাকে নির্বাচন করে। এ প্রচারণায় তাকে হিজাব পরে দেখা যেতো। আর এক্ষেত্রে তিনি হতেন ওই বিজ্ঞাপনের জন্য হিজাব পরা প্রথম নারী মডেল।

কয়েকদিন আগেই নিউজবিটকে এ জন্য নিজের আনন্দের কথাও জানিয়েছিলেন আমেনা খাতুন। তবে সরে দাঁড়ানোর ব্যাখ্যায় আমেনা বলছেন, যে ধরনের ইতিবাচক আবেগ এ ক্যাম্পেইনে পাওয়ার কথা ছিল মানুষের সাম্প্রতিক কথাবার্তা তা খর্ব করেছে। আমেনার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, ২০১৪ সালে কিছু টুইটে ইসরায়েলবিরোধী মনোভাব দেখিয়েছিলেন আমেনা। মুছে ফেলার কারণে ওই টুইটগুলো এখন আর পাওয়া যাচ্ছে না। সোমবার টুইটারে দেয়া এক বার্তায় তিনি বলেন, ‘২০১৪ সালে টুইটারে পোস্ট করা বার্তাগুলোর জন্য আমি গভীরভাবে দু:খ প্রকাশ করছি এবং এর জন্য যারা মর্মাহত হয়েছেন তাদের কাছে আমি আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘অনেক দুঃখের সাথে আমি এই বিজ্ঞাপন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, কারণ আমাকে নিয়ে বর্তমান আলোচনা এর উদ্দেশ্যকে খর্ব করবে।’ এদিকে এএফপি’কে ল’রিয়েল গ্রুপ জানায়, তারা ব্রিটিশ মডেল আমেনা খানের সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তকে অনুমোদন দিয়েছে।

x