সিআরবিতে ডাবল মার্ডার মামলার আসামি ফরিদসহ ৫ জন গ্রেপ্তার

অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম ও মাদক উদ্ধার

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ at ৮:৪০ পূর্বাহ্ণ
407

নগরীর সিআরবির (রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সদর দপ্তর) আলোচিত ডবল মার্ডার মামলার আসামি ও তালিকাভুক্ত কিশোর গ্যাং লিডার ফরিদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম ও মাদক উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত অন্যান্যরা হলেন, তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ী ২০ মামলার আসামি আলাউদ্দিন, ছিনতাইকারী ও মাদক বিক্রেতা ইয়াকুব, মাদক ব্যবসায়ী শিমুল এবং অস্ত্র ব্যবসায়ী মামুন। গতকাল শনিবার ভোরে নগরীর এনায়েত বাজার রাণীর দিঘীর পাড় এলাকার ইসহাক ভিলার তৃতীয় তলার বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে আজাদীকে জানিয়েছেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন।
পুলিশের দাবি, অভিযান চালিয়ে অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম স্লাইড কেইস, ব্যারেল, পিস্তল গ্রিফ উইথ ট্রিগার মেকানিজমের ভাঙা অংশ, স্প্রিং, ম্যাগজিন, পিস্তলের গ্রিফ কভার, রেত পাথর, পিস্তলের বডি লগিং পিন, অস্ত্র মেরামতের ধাতব প্লেট, ১১০ পিস ইয়াবা ও দুইশ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রেলওয়ের স্টাফ কোয়ার্টারসহ আশপাশের এলাকার বাসিন্দাদের কাছে শেখ ফরিদ আতঙ্কের নাম। টাইগারপাস, পলোগ্রাউন্ড-সিআরবিসহ আশপাশের এলাকায় চাঁদাবাজ ও ছিনতাইকারী হিসেবে পরিচিত ফরিদ রেলওয়েতে টেন্ডারবাজি নিয়ে আলোচিত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল আলম লিমনের অনুসারীদের নিয়ন্ত্রণ করে। সিআরবিতে টেন্ডার নিয়ে একাধিক সংঘর্ষে লিমন গ্রুপের হয়ে অংশ নিয়েছিল শেখ ফরিদ। মোহাম্মদ মহসীন ফরিদ প্রসঙ্গে আরো বলেন, তার নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন শিশু-কিশোরের একটি গ্রুপ আছে। তাদের ছিনতাই-চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধে ব্যবহার করে সে। নিজেও চলাফেরা করে গ্রুপ নিয়ে।
প্রসঙ্গত: ২০১৩ সালের ২৪ জুন রেলওয়ের কোটি টাকার দরপত্রের ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর এবং ছাত্রলীগের তৎকালীন কেন্দ্রীয় নেতা সাইফুল আলম ওরফে লিমনের অনুসারী নেতাকর্মীদের মধ্যে সিআরবি এলাকায় সংঘর্ষ হয়। এই সংঘর্ষে দুজন নিহতের মামলার আসামি ফরিদ।

x