সাতকানিয়া উপজেলায় ভোট গ্রহণ আজ

কধুরখীলসহ নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপিতেও নির্বাচন

আজাদী ডেস্ক

সোমবার , ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ at ৩:১৮ পূর্বাহ্ণ
256

সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ এবং বোয়ালখালী কধুরখীল ও নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন আজ। এই উপলক্ষে গতকাল সন্ধ্যার আগেই প্রত্যেক ভোট কেন্দ্রে পৌঁছে গেছেন ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।
নির্বাচন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তাদের দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ থাকলেও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে আগ্রহ কম বলে দাবি স্থানীয়দের। নির্বাচনের বিষয়ে জানতে চাইলে সাধারণ ভোটাররা জানান, ভোট কেন্দ্রের পরিবেশের উপর নির্ভর করবে ভোট দেয়া, না দেয়া। এদিকে গত শনিবার মধ্য রাতে প্রচার-প্রচারণা শেষ হলেও প্রার্থীর সমর্থকরা গতকাল শেষবারের মতো ভোটাদের ঘরে ঘরে গিয়ে প্রার্থীর পক্ষে ভোট চেয়েছেন।
আমাদের সাতকানিয়া প্রতিনিধি জানান, আজ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে। এবার প্রথমবারের মতো সবকটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়া হবে। উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে প্রশাসন।
সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ শেখ ফরিদ জানান, এবারে নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এম এ মোতালেব সিআইপি (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবদুল গফ্‌ফার চৌধুরী (ধানের শীষ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মোনায়েম মুন্না চৌধুরী (মটর সাইকেল)। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন- তারান্নুম আয়েশা (প্রজাপতি), জান্নাতুল নাঈম রিকু (ধানের শীষ) ও আনজুমান আরা বেগম (কলসি)। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন, মোহাম্মদ শাহজাহান (তালা), সালাহ উদ্দিন হাসান চৌধুরী (বই), মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন (চশমা), বশির উদ্দিন আহমদ (ধানের শীষ), আছিফুর রহমান সিকদার (মাইক) ও ওমর ফারুক লিটন (নলকূপ)।
এই সহকারী রিটার্নিং অফিসার আরো জানান, এবার সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ৮৩ হাজার ৩শ’ ৮০ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫০ হাজার ২শ ৮৬ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৪ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১শ’ ২৫টি এবং বুথ সংখ্যা ৭শ’ একটি। তিনি জানান, ভোট কেন্দ্রে ১শ’ ২৫ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৭শ’ একজন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ৪শ’ ২ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
এদিকে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণের লক্ষ্যে প্রশাসন নানা উদ্যোগ নিয়েছে। রিটার্নিং অফিসার ও চট্টগ্রামের সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ মুনীর হোসাইন খান, সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোবারক হোসেন ও সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সফিউল কবীরের দেয়া তথ্য মতে, নির্বাচনে ১শ’ ২৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯৩টি কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ ও অন্যান্য কেন্দ্রগুলোকে সাধারণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। নির্বাচনে ১৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৫ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের ৪টি টহল টিম সার্বক্ষণিক ভাবে কাজ করবে। প্রত্যেক কেন্দ্রে ২ জন করে সেনা সদস্য ইভিএম সংক্রান্ত টেকনিক্যাল সাপোর্ট দেয়ার জন্য নিয়োজিত থাকবেন।
রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ মুনীর হোসাইন খান ও সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন জানান, অবাধ, সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনী সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
কধুরখীলে নির্বাচন : আমাদের বোয়ালখালী প্রতিনিধি জানান, বোয়ালখালী কধুরখীল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আজ। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় আইনশৃক্সখলা বাহিনী মোতায়েনসহ ভোটগ্রহণের সকল প্রস্তুতি সমপন্ন করেছে প্রশাসন। এ নির্বাচনে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর কোনো প্রার্থী না থাকলেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শফিউল আজম সেফুর সাথে মোটর সাইকেল প্রতীকে আবু জাফর মোহাম্মদ মুছা ও আনারস প্রতীকে রেজাউল করিম খোকন নামের দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া এখানে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১১ জন ও সদস্য পদে ৫৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ ইউনিয়নে ভোটার রয়েছেন ১০ হাজার ৮শ ৪৩ জন। এর মধ্যে ৫ হাজার ৫শ ৯০ জন পুরুষ ও ৫ হাজার ২শ’ ৫৩ জন মহিলা ভোটার। ৯টি কেন্দ্রে ও ৩৫টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, ভোটগ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি শেষ। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেন সেই প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, এ ইউনিয়নে সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০০৩ সালে। বোয়ালখালী পৌরসভা গঠনের সময় এ ইউনিয়নের ৩টি ওয়ার্ড পৌর এলাকায় অনুর্ভুক্ত করায় সীমানা জটিলতায় এতদিন নির্বাচন হয়নি এখানে।
নাইক্ষ্যংছড়ির ৩ ইউপিতে নির্বাচন : আমাদের নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি সদর, সোনাইছড়ি ও ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আজ। এ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে না। ফলে আওয়ামী লীগই নিজেদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। আজ সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে।
সদর ইউনিয়ন পরিষদ : এখানে চেয়ারম্যান প্রার্থী ২ জন। এ ইউনিয়নে ৯ ভোট কেন্দ্রের ভোট কক্ষের সংখ্যা ৪০টি। ভোটার ১১ হাজার ১২৩ জন। পুরুষ ৫ হাজার ৬৫৬ জন আর মহিলা ৫ হাজার ৪৬৭ জন। এখানে প্রার্থী হিসেবে আছেন নৌকা প্রতীকের তসলিম ইকবাল চৌধুরী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস মার্কা) নুরুল আবছার।
সোনাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ : উপজাতি অধ্যূষিত এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ২ জন। ৯ কেন্দ্রে ভোটার ৩ হাজার ৪৯৮ জন। ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান বাহান মার্মা ইউনিয়ন আওয়ামৗ লীগের সভাপতি। তবে তিনি প্রার্থী হয়েছেন আনারস প্রতীক নিয়ে। আর নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে আছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এনিং মার্মা।
ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদ : ঘুমধুমে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। উপজেলা সদর থেকে বিচ্ছিন্ন ও দূরের এ ইউনিয়নটি কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলা সদর এবং উখিয়ার কুতুপালং সংলগ্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প লাগোয়া পূর্বপার্শ্বে। আর পূর্বদিকে মিয়ানমারের সীমান্ত এলাকা। ইউনিয়নটিতে ভোটার ৯ হাজার ৩০১ জন। সীমান্তের এ ইউনিয়নটির ৯টি কেন্দ্রে ভোট কক্ষ ৩৪টি। এখানে বর্তমান চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে মাঠে আছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী রশিদ আহমদ (ঘোড়া প্রতীক)। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার আবু জাফর ছালেহ জানান, প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশ ও আনসার-ভিডিপি থাকবে ১৯ জন করে। প্রতিটি কেন্দ্রেই ভোট গণনা হবে। প্রতি ইউনিয়নে ২ প্লাটুন বিজিবি ও ৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।

x