সাতকানিয়ায় তাড়াতে গিয়ে হাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে নিহত ১

সাতকানিয়া প্রতিনিধি

মঙ্গলবার , ১ অক্টোবর, ২০১৯ at ৭:১৪ অপরাহ্ণ
145

সাতকানিয়ায় বন্যহাতির আক্রমণে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

নিহতের নাম রূপন চক্রবর্তী (৫০)।

গত সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার চরতি ইউনিয়নের দক্ষিণ ব্রাহ্মণডেঙ্গা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রূপন চক্রবর্তী দক্ষিণ ব্রাহ্মণডেঙ্গার মৃত খোকন চক্রবর্তীর ছেলে।

এলাকাবাসী জানান, ঘটনার দিন দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে চরতি ইউনিয়নের দক্ষিণ ব্রাহ্মণডেঙ্গা এলাকায় ৫-৬টি বন্যহাতির একটি দল লোকালয়ে প্রবেশ করে। তখন স্থানীয় লোকজন লাঠি হাতে নিয়ে ও মশাল জ্বালিয়ে চিৎকার করে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা চালায়। এসময় দলছুট হয়ে একটি হাতি রূপন চক্রবর্তীর ঘরের পার্শ্ববর্তী এলাকায় এসে অবস্থান করতে থাকে।
এদিকে, এলাকার লোকজনের চিৎকার শুনে রূপন চক্রবর্তী ঘর থেকে বের হয়ে দৌঁড়ে সেখানে যাচ্ছিলেন। এসময় তিনি বন্যহাতির সামনে পড়ে গেলে হাতি তাকে প্রথমে শুঁড় দিয়ে আঘাত করে পরে পা দিয়ে চাপা দেয়। এতে রূপন ঘটনাস্থলে মারা যান।

চরতি ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা মুহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, লোকালয়ে হাতি আসার বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় লোকজন মশাল জ্বালিয়ে চিৎকার করে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা চালায়। এসময় লোকজনের চিৎকার শুনে ঘুম থেকে উঠে রূপন চক্রবর্তীও সেখানে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন কিন্তু এর আগেই তার ঘরের আশপাশে হাতি এসে দাঁড়িয়ে থাকার বিষয়টি রূপন বুঝতে পারেননি। ফলে দৌঁড়ে যাওয়ার সময় হাতির সামনে পড়ে যান। হাতি রূপনকে প্রথমে শুঁড় দিয়ে ও পরে পা দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলে তিনি মারা যান।

চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বলেন, ‘সারাবছরই চরতি ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় ও লোকালয়ে বন্যা হাতির দল আসে। হাতির কাছে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি। সোমবার রাতে আসা হাতির দলটি এখনো চরতির পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান করছে। ফলে পুরো এলাকার মানুষ আতংকের মধ্যে রয়েছে। হাতির পাল কখন আবার লোকালয়ে ঢুকে পড়ে সবাই সেই আতংকে রয়েছে।’

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন বলেন, ‘চরতিতে বন্যহাতির আক্রমণে এক ব্যক্তি নিহত হওয়ার বিষয়ে আমরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট রিপোর্ট পাঠিয়ে দিয়েছি। এছাড়া নিহত ব্যক্তির পরিবার যাতে সরকারিভাবে সহায়তা পায় সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তাকে বলা হয়েছে।’

x