(সহোদর)

আব্দুস সহিদ

বৃহস্পতিবার , ২২ আগস্ট, ২০১৯ at ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ
196

ভাই, এখন আর ফোন করোনা, ফোন করলেও ফোন ধরোনা। ০১৮৬…৩৩ আর বাজেনা সুর তোলে কেমন আছিস, কেউ বলেনা। ভাই, নিত্য দিনের সম কথা আর আসেনা, তোমায় নিয়ে এখন আর, কেউ হাসেনা। ভালবাসার চিন পাখিটা ডানা ভেঙে উড়াল দিতে চেয়েও কেন, আর ওড়ে না। তুমি কত বোকা ছিলে, তা না হলে তেইশ বছরের যুবককে কেউ, শিশু ভাবে! ভাবতে তুমি আমায় তেমন। বাস ড্রাইভারের গলায় ধরে, খুব বিনয়ে বলতে ভাইটিকে নামিয়ে দিও গ্র্যান্ড হোটেলের সামনে। হরহামেশায় সবার সাথে মিশত হাসি মুখে। অফিস পাড়ায়, চায়ের দোকানে সবাই তো কাঁদে যম তোমাকে প্রমাণ করলো তুমি মরোনি, সত্যি তুমি ফেললে তোমার ভালবাসার ফাঁদে। ইচ্ছা ছিল প্রয়াত কন্যা ইকরার পাশে, আমি ঘুমাব, ছিনিয়ে নিলে জায়গাটুকু কোন দাম না দিয়ে, কি দাম নিব! আমার কাছে- ইকরা যেমন, তুমিও তেমন ছলছলিয়ে। গোরস্থানে, মায়ের পাশও দখল হলো- দূরত্বটাও বাড়ালে তুমি – মায়ের পাশে মেয়ে, মেয়ের পাশে ভাই, এবার বলো এত্তো কষ্ট কেমনে সামলাই। ভাই, অনুরাগের খাতা তোমার বড্ড ভারী, তবুও তুমি কারো সাথে দাওনি কোন আড়ি। ভাল নেই, আমরা কেউই ভাল নেই, পাঠিয়ে তোমায় চির যমের বাড়ি। ভাই, ঘুমের দেশে ঘুম পাড়ানীর সঙ্গী হলে! স্বজনদের সব কথা কি ভুলেই গেলে? ভুল হলে ক্ষমা করো, জান্নাতিদের ভীড়ে তোমায় খুঁজে নিবো। ভাইয়ের মৃত্যুতে……. শোকাভিভূত আমি।

x