শেখ রাসেল প্রতিটি শিশুর মাঝে বেঁচে আছে

জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বক্তারা

সোমবার , ২১ অক্টোবর, ২০১৯ at ৩:০৩ পূর্বাহ্ণ
33

বাঁশখালীতে উপজেলা আওয়ামীলীগ, পৌরসভা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও মহিলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে। গত রবিবার সকাল ১১টায় বাঁশখালী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ও বাঁশখালীর এমপি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী। বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল গফুরের সভাপতিত্বে এবং মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শহীদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম, বৈলছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান কপিল উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক মোজাম্মেল হক সিকদার, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবু বকর মো. সিদ্দিকী, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা ছৈয়দ আবু সুফিয়ান, যুবলীগ নেতা মো. হামিদুল্লাহ, মো. জাহাঙ্গীর, কাউন্সিলর আব্দুর রহমান প্রমুখ।
প্রধান অতিথি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি বলেন, অবোধ শিশু রাসেলকে হত্যা করে খুনিরা তাদের পৈশাচিকতার নগ্নরূপ প্রর্দশন করেছিল। সেই খুনিদের কালো ছায়া এখনও প্রবাহিত হচ্ছে শকুনের রূপ ধরে। তিনি বলেন, শেখ রাসেল মরেনি। প্রতিটি শিশুর মাঝে শেখ রাসেল বেঁচে আছে।
চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্রলীগ পরিষদ : চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্রলীগ পরিষদের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ সন্তান শেখ রাসেল এর ৫৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল পরিষদের সভাপতি ডা. শেখ শফিউল আজমের সভাপতিত্বে গত ১৯ অক্টোবর বিকেল ৫টায় চট্টগ্রাম জেলা রেডক্রিসেন্ট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক অলিদ চৌধুরীর পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জাফর আহমদ, সহ সভাপতি রেখা আলম চৌধুরী, এডভোকেট কামরুন নাহার, যুগ্ম সম্পাদক মো. লিয়াকত আলী খান, পরিষদ নেতা মোজাফফর হোসেন, সৈয়দ মুহাম্মদ মুসা, আবদুর রহমান, আমিনুল করিম, মো. এয়াকুব চৌধুরী, কাজী আবদুল হাই, তরুণ কুমার রায়, আসিফ ইকবাল, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনির, যুগ্ম সম্পাদক ইউছুফ কবির, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগনেতা মো. রুবেল উদ্দীন, ইয়াসিন আরাফাত রিংকু, আবদুল্লাহ আল জাবের প্রমুখ। সভার সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, শহীদ শেখ রাসেলের মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিচ্ছবি দেখতে পাওয়া যেত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তাঁরই কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলসহ বঙ্গবন্ধুর পরিবার পরিজনের হত্যা কারবালার এজিদীয় বাহিনীর হত্যা কাণ্ডকেও হার মানিয়েছে। সভায় দোয়া ও মোনাজাত করেন মো. আবদুল হাই। সভাশেষে শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিনের কেক কাটেন অতিথিবৃন্দ।
মুসাফির সংগঠন : সামাজিক সংগঠন মুসাফিরের উদ্যোগে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও কেক কাটা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিম উদ্দিন শ্যামল। ১৮ অক্টোবর বিকেলে নগরীর চমেক হাসপাতালস্থ একটি রেস্টুরেন্টে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাংবাদিক মুহাম্মদ মহরম হোসাইনের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংগঠনের সহ সভাপতি মো. নাজিম উদ্দিন, রাজনীতিবিদ শাহেদুল ইসলাম শাহেদ, জহুর আহমদ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সংগঠক শরফুদ্দিন চৌধুরী রাজু, রাজনীতিবিদ ওয়াহিদুল আলম শিমুল, যুব সংগঠক সাহেদ হোসেন টিটু, যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির মাসুদ, সংগঠনের অর্থ সম্পাদক কামাল উদ্দিন চৌধুরী, সংগঠনের কার্যকারী সদস্য সাংবাদিক জিয়াউল হক ইমন, ইরফান উদ্দিন ফয়েজ। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, রিপন বিশ্বাস, ইমন খান, সজীব আনোয়ার ইভান প্রমুখ।
আমরা রাসেল পরিষদ : শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা রাসেল পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর ও থানা ওয়ার্ডের উদ্যোগে নাসিরাবাদস্থ একটি হোটেলের সামনে আলাচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের সদস্য সাবেক কমিশনার হাসিনা জাফর। আমরা রাসেল পরিষদ মহানগর আহ্বায়ক শাহেদুল আলম অপুর সভাপতিত্বে ও নগর যুগ্ম সম্পাদক জাহেদ হোসেন টিটুর পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, ওমরগণি এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মোহাম্মদ মোহসীন। বক্তব্য রাখেন, মহানগর যুবলীগ নেতা নাছির ঊদ্দিন, যুবলীগ নেতা মহিদুল হক মামুন, মো. দুলাল আহম্মেদ, মো. আমানুল্লাহ আমান। আরো বক্তব্য রাখেন খুলশী থানা আহ্বায়ক মো. মোজাসের আলম, এয়াকুব হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক আরমান মিয়া, শুলকবহর ওয়ার্ড সভাপতি মো. শাকিল আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন, এনায়ত বাজার ওয়ার্ড আহ্বায়ক রাবসান ইরফান, সহ বিভিন্ন থানা ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ। এতে প্রধান অতিথি বলেন, দেশের ইতিহাসে শুধু নয় পৃতিবীর ইতিহাসে এ হত্যাকান্ড বর্বরাচিত ও জঘন্যতম। বঙ্গবন্ধুর উত্তরাধিকার নিশ্চিন্ন করতে শেখ রাসেলকে হত্যা করা হয়েছিল।
বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা ফাউন্ডেশন: বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল’র ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শ্যামল বৈদ্য সবুজের পরিচালনায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠান গত ১৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব লায়ন ডা. আর.কে রুবেল। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাংগঠনিক সচিব মৃণাল কান্তি দাশ, সহ-প্রচার সচিব এস.এম. জাবেদ হোসেন, ডা. এস.কে পাল সুজন, ডা. অপূর্ব ধর প্রমুখ। প্রধান অতিথি বলেন, ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালের হত্যাযজ্ঞের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল তা ইতিহাসে কলঙ্কিত অধ্যায়। শিশু রাসেলকে যেভাবে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল জাতি তা মেনে নিতে পারেনি। শেখ রাসেল’র নিষ্পাপ দৃষ্টিকে কেন্দ্র করে তরুণ প্রজন্মদের মাঝে চেতনা জাগ্রত হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x