শিব চতুর্দশী মেলায় ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা ভণ্ডুল

৫ ছিনতাইকারী আটকের পর তথ্য

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি

মঙ্গলবার , ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৯:০৭ পূর্বাহ্ণ
352

আগামী ৩ মার্চ সীতকুণ্ড চন্দ্রনাথধামে অনুষ্ঠিত হবে হিন্দু সম্প্রদায়ের শিব চতুর্দশী মেলা। এই মেলায় প্রতি বছর কয়েক লাখ পুণ্যার্থীর সমাগম ঘটে। আর এই মেলাকে ঘিরে ছিনতাইয়ের পরিকল্পনায় সংগঠিত হচ্ছিলো তারা। জীবন ত্রিপুরাসহ ৫ ছিনতাইকারী অস্ত্রসহ আটকের পর এই চাঞ্জল্যকর তথ্য রেবিয়ে এসেছে। গত শনিবার বিকেলে সীতাকুণ্ড চন্দ্রনাথ ধামে ছিনতাইয়ের ঘটনার পর আটক ছিনতাইকারীরা পুলিশের স্বীকারোক্তিতে বলেন, মেলায় ৬০ জনের একটি ছিনতাইকারী দল ইকোপার্কের পাহাড়ের বিভিন্নস্থানে অবস্থান নিয়ে পর্যটক ও শিব চতুর্দশীতে তীর্থ করতে আসা পুণ্যার্থীদের মোবাইলসহ টাকা ও স্বর্ণালংকার ছিনতাই করবে। রোববার রাতে ও সোমবার দুপুর পৃথক অভিযানে ছিনতাইকারী দলের ৫ সদস্য আটকের পর ছিনতাইদের সেই পরিকল্পনা নস্যাৎ হয়ে গেছে।
আটক ছিনতাইকারীরা হল জীবন ত্রিপুরা (১৮), নকুল ত্রিপুরা (২০), সাইমং মারমা (২৫), সুরেশ ত্রিপুরা (২৩) ও পাইরুইমাং মারমা (২৭)।
আটক ছিনতাইকারী দলের সদস্য জীবন ও সুরেশ জানায়, তারা স্থানীয় সন্ত্রাসী শহীদ গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। আগামী ৩ মার্চ তিনদিন ব্যাপী শিব চতুদর্শী মেলায় পার্বত্য অঞ্চল ও ময়মনসিংহ থেকে ৬০জন ছিনতাইকারী ইকোপার্ক এলাকায় আসবে। তারা শিব চতুদর্শী তীর্থকারী ও পর্যটকদের মোবাইল টাকাসহ সর্বস্ব ছিনতাই করার জন্য শহীদ ও তাদের সহযোগী জীবন এখানে জড়ো করার পরিকল্পনা করেছে। তবে পুলিশের অভিযানে তাদের সেই পরিকল্পনা ভণ্ডুল হয়ে গেছে।
সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. দেলওয়ার হোসেন বলেন, তাদের পরিকল্পনা ছিলো ছিনতাই ও ডাকাতির। শিব চতুদর্শীতে আসা পুণ্যার্থী ও পর্যটকদের টার্গেট ছিলো তাদের।
সীতাকুণ্ড থানার ওসি (অপারেশন) জাব্বারুল ইসলাম জানান, আসলে সন্ত্রাসী শহীদের লোকজন পাহাড়ে ছিনতাই করে আবার দুর্গম পাহাড়ে আত্মগোপন করে। ফলে তাদের অবস্থান জানা একটু কঠিন হয়ে যায়। ফলে তারা বারবার অপরাধ করেও পালিয়ে যায়। কিন্তু তাদের গ্রেপ্তারে পুলিশ সচেষ্ট আছে।

x