শিক্ষাব্রতী ও সমাজ সংস্কারক অবলা বসু

বৃহস্পতিবার , ৮ আগস্ট, ২০১৯ at ৩:২৪ পূর্বাহ্ণ
34

অবলা বসু – বিশিষ্ট শিক্ষাব্রতী ও সমাজ সংস্কারক হিসেবে সুখ্যাত। স্ত্রী শিক্ষার প্রসার ও বিধবা নারীদের স্বাবলম্বী করে তোলার লক্ষ্যে তিনি নানাভাবে কাজ করেছেন। লেডি অবলা বসু নামে তিনি বিশেষভাবে পরিচিত। আজ তাঁর ১৫৫তম জন্মবার্ষিকী।
অবলা বসুর জন্ম বরিশালে ১৮৬৪ সালের ৮ আগস্ট। বাবা দুর্গামোহন দাস ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সংস্কারক। কলকাতার বঙ্গ মহিলা বিদ্যালয় ও বেথুন স্কুলে শিক্ষা শেষে অবলা বসু বাংলা সরকারের বৃত্তি নিয়ে মাদ্রাজ মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। যুগ পরিবেশের তুলনায় অগ্রগামী অবলা অনুভব করতেন নারীদের সুশিক্ষিত করতে না পারলে সমাজ অগ্রগতি অসম্ভব। এই লক্ষ্যে ব্রাহ্মবালিকা শিক্ষালয়ের প্রধান শিক্ষক কৃষ্ণ প্রসাদ বসাকের সহযোগিতায় তিনি গঠন করেন নারী শিক্ষা সমিতি। এরই ধারাবাহিকতায় পরবর্তীকালে বাংলার গ্রামে-গঞ্জে বহু বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। বিধবা নারীদের আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে তিনি গড়ে তোলেন বিদ্যাসাগর বাণীভবন, মহিলা শিল্প ভবন, বাণীভবন ট্রেনিং স্কুল ইত্যাদি। স্বামী বিখ্যাত বিজ্ঞানী জগদীশচন্দ্র বসুর সহায়তায় অবলা বসু অনেক কল্যাণমূলক কাজ করেছেন। জগদীশচন্দ্রের মৃত্যুর পর তাঁর প্রদত্ত বড় অঙ্কের টাকা দিয়ে তৈরি করা হয় ‘অ্যাডাল্টস প্রাইমারি এডুকেশন সেন্টার’।
অবলা বসুর অগ্রজ সরলা রায় ছিলেন গোখেল মেমোরিয়াল গার্লস স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা। ১৯৫১ সালের ২৬ এপ্রিল শিক্ষাব্রতী ও সমাজসেবী অবলা বসু প্রয়াত হন।

x