রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় জাতিসংঘে ফের রেজ্যুলেশন পাস

আজাদী অনলাইন

শুক্রবার , ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ at ১২:৪৩ অপরাহ্ণ

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের তৃতীয় কমিটিতে বিপুল উন্মুক্ত ভোটের মাধ্যমে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় আবারও একটি রেজ্যুলেশন পাস হয়েছে। ‘মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিম ও অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানবাধিকার পরিস্থিতি’- শিরোনামে রেজ্যুলেশনটি জাতিসংঘে উত্থাপন করা হয়।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) জাতিসংঘের বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন থেকে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এতে বলা হয়, রেজ্যুলেশনে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের বিভিন্ন উপায়ের ওপর আলোকপাত করা হয়েছে এবং মিয়ানমারকে কী কী পদক্ষেপ নিতে হবে, তা স্পস্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া রেজ্যুলেশনটি নিরাপত্তা পরিষদকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সুস্পষ্ট পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। যা নিরাপত্তা পরিষদের ওপর সরাসরি চাপ সৃষ্টি করবে। এতে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের ব্যর্থতার জন্য এতে মিয়ানমারকে দায়ী করে স্পষ্ট রাজনৈতিক সদিচ্ছা প্রদর্শন এবং প্রত্যাবাসনের উপযোগী পরিবেশ তৈরিসহ সুনির্দিষ্ট ১০টি বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতেও বলা হয়েছে। এছাড়া মিয়ানমার বিষয়ক জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূতকে বাস্তব পরিস্থিতির বিষয়ে রিপোর্টিং বাধ্যতামূলক করার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।-বাংলানিউজ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারের সাধারণ পরিষদ অধিবেশনে দেওয়া বক্তব্যে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে যেসব প্রস্তাবনা দেন, তার বেশ কয়েকটি প্রস্তাবনা রেজ্যুলেশনটিতে স্থান পেয়েছে। এছাড়া ‘রোহিঙ্গা মুসলিম’ শব্দটি অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। যা গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন।

রেজ্যুলেশনটির পক্ষে ভোট দেয় ১৪০টি দেশ। বিপক্ষে নয়টি ভোট পড়ে। আর পক্ষ অবলম্বনবিহীন ভোট পড়ে ৩২টি দেশের।

২০১৭ সাল থেকেই নিয়মিতভাবে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশনের (ওআইসি) নেতৃত্বে মিয়ানমারের মানবাধিকার সংকট ইস্যুতে তৃতীয় কমিটিতে এই রেজ্যুলেশন আনা হচ্ছে।

গত বছর থেকে ওআইসি ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) যৌথভাবে তৃতীয় কমিটিতে রেজ্যুলেশনটি উত্থাপন করছে এবং প্রতিবারই বিপুল ভোটে গৃহীত হচ্ছে। এবারের রেজ্যুলেশনটি মিয়ানমারের ওপর রাজনৈতিক চাপকে শুধু জোরদারই করবে না বরং তা অব্যাহত রাখতে ভূমিকা রাখবে।

ওআইসি ও ইইউয়ের সদস্যরাষ্ট্র এবং যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অষ্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড ও মেক্সিকোসহ মোট ১০২টি দেশ রেজ্যুলেশনটি কো-স্পন্সর করে। যা রোহিঙ্গা বিষয়ে বিশ্ব জনমতের জোরালো প্রতিফলন।

x