রাঙামাটির দুর্গম ১৮ কেন্দ্রে ভোটের সরঞ্জাম যাচ্ছে হেলিকপ্টারে

রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

শুক্রবার , ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ
40

রাঙামাটি জেলার ২০৩টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৮টি দুর্গম ও প্রত্যন্ত এলাকার কেন্দ্রে ভোটের মালামাল পরিবহনের জন্য হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুর্গম কেন্দ্রগুলোতে হেলিকপ্টারে করে মালামাল পরিবহন শুরু হয়েছে। সকাল থেকে রাঙামাটি সার্কিট হাউজ সংলগ্ন হেলিপ্যাড থেকে ৬টি কেন্দ্রের মালামাল নেয়া হয়। বাকিগুলোতে আজ শুক্রবারের মধ্যে মালামাল পৌঁছানো হবে।
রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রফিকুল হক জানান, রাঙামাটির ১৮টি কেন্দ্রে হেলিকপ্টারে সরঞ্জাম পাঠানো হচ্ছে, এই ১৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩টি কেন্দ্রের সরঞ্জাম যাবে রাঙামাটি সদর থেকে। যার মধ্যে বৃহস্পতিবার ৬টি কেন্দ্রে এবং শুক্রবার (আজ) ৭টি কেন্দ্রে। অন্যদিকে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা থেকে ৫টি কেন্দ্রে ভোটের সরঞ্জাম ও লোকবল হেলিকপ্টারে পাঠানো হবে। এছাড়া দুর্গমতার কারণে ১৮টি কেন্দ্রে ভোটের মালামাল এবং ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের হেলিকপ্টারে নেয়া হচ্ছে, আবার ভোট গণনা শেষে তাদের সেখানে থেকে হেলিকপ্টারযোগে ফেরত আনা হবে।
এদিকে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় দুর্গম নাড়াইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হেলিকপ্টারযোগে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে নির্বাচনী কর্মকর্তা, কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২৮ সদস্য এবং নির্বাচনী সরঞ্জাম নিয়ে দীঘিনালা জোন হেলিপ্যাড থেকে দুইটি হেলিকপ্টার দুর্গম নাড়াইছড়ির উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করে দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ উল্যাহ বলেন, হেলিকপ্টার স্বল্পতা এবং অনুকূল আবহাওয়ার কারণেই নির্ধারিত সময়ের আগেই নাড়াইছড়ি ভোট কেন্দ্রে নির্বাচনী দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিসহ নির্বাচনী সরঞ্জামা পাঠানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, দীঘিনালার বাবুছড়া ইউনিয়নের দুর্গম নাড়াইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে যাতায়াতের জন্য উপজেলা সদরের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা নেই। দুর্গম এ জনপদে পায়ে হেঁটে যাওয়া ছাড়া বিকল্প কোনো পথ নেই। ভোট গ্রহণের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাসহ নিরাপত্তা বাহিনী ও সংশ্লিষ্টদের যাতায়াতের সুবিধার্থে এসব কেন্দ্রে বরাবরই হেলিকপ্টার ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

x