মৌলবাদ ও সন্ত্রাসের সাতকানিয়া এখন শান্তির জনপদ

মরফলা আর এম এন উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তীতে ভূমিমন্ত্রী

সাতকানিয়া প্রতিনিধি

রবিবার , ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ at ১১:০৩ পূর্বাহ্ণ
65

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেছেন, মৌলবাদ ও সন্ত্রাসের সাতকানিয়া এখন শান্তির জনপদে পরিণত হয়েছে। চট্টগ্রাম-১৫ আসনের সাংসদ প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এবং এখানকার কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রচেষ্টায় তা সম্ভব হয়েছে। সাতকানিয়া-লোহাগাড়া এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থার ঠিকানায় পরিণত হয়েছে। তারই অংশ হিসেবে সদ্য ঘোষিত আওয়ামী লীগের কমিটিতে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে দপ্তর সম্পাদক ও আমিনুল ইসলাম আমিনকে উপ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে। এছাড়া ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। লোহাগাড়ার আরেক কৃতী সন্তান প্রয়াত মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন বীর বিক্রম দীর্ঘদিন যাবৎ প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। আমরা অসময়ে তাকে হারিয়ে ফেলেছি। কিন্তু তাঁর রেখে যাওয়া কীর্তির মাঝে জয়নুল আবেদীন অমর হয়ে থাকবেন। তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে সাতকানিয়ার নলুয়ায় মরফলা আর এম এন উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
ভূমিমন্ত্রী আরো বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু বাঙালী জাতির জন্য আল্লাহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। নেত্রীর সীমাহীন প্রচেষ্টার মাধ্যমে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অনেক প্রকল্প ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন হয়েছে। শেখ হাসিনার হাত ধরে এদেশ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় পরিণত হবে। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বের ফলে বিশ্ব দরবারে বাঙালি জাতি সম্মানিত হয়েছে। বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল। অতি অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের এমন অগ্রগতি কিভাবে সম্ভব হয়েছে তা অনেক উন্নত দেশের মন্ত্রীরা আমাদের কাছে প্রশ্ন করেন। তখন আমরা বলি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণেই এসব কিছু সম্ভব হয়েছে।
চট্টগ্রাম মা ও শিশু মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও মরফলা আর এম এন উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ এ এস এম মোস্তাক আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ আরো বলেন, সুশিক্ষিত জাতি গঠনে সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। আগামী প্রজন্মকে জনশক্তিতে পরিণত করতে সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষার প্রতি মনোযোগী হতে হবে। প্রতিবছর যে পরিমাণ ছেলে মেয়ে উচ্চ শিক্ষিত হয়ে বের হচ্ছে সে পরিমাণে কর্মসংস্থান নাই। ফলে সরকার কারিগরি শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ করেছে। দেশের প্রত্যেকটি উপজেলায় ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টার চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে।
সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন, চট্টগ্রাম-১৫ আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সুবর্ণজয়ন্তী ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী পুনর্মিলনী উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ লিয়াকত আলী।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি, রূপালী ব্যাংকের পরিচালক ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবু সুফিয়ান, সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্র্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন, সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান মোল্যা, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম এ সাঈদ, সদস্য মোস্তাক আহমদ আঙ্গুর, নলুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আহমদ মিয়া, নলুয়া ইউপি চেয়ারম্যান তসলিমা আকতার, খাগরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আকতার হোসাইন ও আমিলাইষ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সরওয়ার উদ্দিন চৌধুরী।