মেয়াদোত্তীর্ণ দই রসমালাই ওষুধ ও রং মিশ্রিত চিপস ও বাসি খাবার বিক্রি

খুলশী-পাহাড়তলীর ৬টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৬:১৩ পূর্বাহ্ণ
216

গতকাল নগরীর খুলশী, আকবরশাহ্‌ ও পাহাড়তলী এলাকায় তদারকিমুলক অভিযানে ৬টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৬৯ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। অভিযানে অননুমোদিত রং মিশ্রিত চিপস, বাসি খাবার, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ, প্রায় ১০ লিটার পোড়াতেল, মেয়াদ উত্তীর্ণ দই ও রসমালাই ধ্বংস করা হয়। এছাড়া ১০টি কম ওজনের বাটখারা জব্দ করা হয়েছে। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয় পৃথক ভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে। এপিবিএন ৯ এর সদস্যবৃন্দের সহযোগিতায় এ অভিযান চালানো হয়।
খুলশী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস। অভিযানে ওয়ারলেস এলাকায় অননুমোদিত রঙ মিশ্রিত চিপস বিক্রির জন্য নাওশাদ ফুড প্রোডাক্টসকে ২৫ হাজার টাকা, দইয়ের মোড়কে উৎপাদন মেয়াদের তারিখ উল্লেখ না থাকা, মেয়াদ উত্তীর্ণ দই ফ্রিজে সংরক্ষণ করায় মধুবন সুইটসকে ১০ হাজার টাকা এবং অননুমোদিত বিদেশি ঔষধ বিক্রয়ের জন্য দি ইনসুলিন সেন্টারকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় বিক্রয় নিষিদ্ধ ওষুধ, অননুমোদিত রং মিশ্রিত চিপস, মেয়াদ উত্তীর্ণ দই ও রসমালাই ধ্বংস করা হয়।
আকবরশাহ্‌ ও পাহাড়তলী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। অভিযানে এ পকে খান মোড়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার প্রস্তুত, সংবাদপত্রে খাদ্যদ্রব্য সংরক্ষণ, বাসি মিষ্টি সংরক্ষণ, পোড়াতেল ব্যবহার, জমানো পানিতে থালা-বাটি ধৌত করায় আরাফাত ভাতঘর ও বিরানি হাউসকে ৫৩ ধারায় ১৫ হাজার টাকা, কর্নেলহাট কাঁচাবাজারের আরমান পোলট্রিকে জীবিত মুরগীর উপর মুরগী জবাই ও চরম নোংরা পরিবেশে মুরগী বিক্রয় করায় ৪৩ ধারায় ১০ হাজার টাকা, পাহাড়তলী থানার আম্মাজান ভাতঘরকে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার সংরক্ষণ করায় ৪৩ ধারায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয়। এসময় প্রায় ১০ লিটার পোড়াতেল, বাসি মিষ্টি ধ্বংস করে ১০টি কম ওজনের বাটখারা আটক করা হয়। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের এই দুই কর্মকর্তা।

x