মুমিনুলের হাত ধরে শুরু হতে যাচ্ছে নতুন অধ্যায়

সুলতান মাহমুদ সেলিম

বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ at ৩:০১ পূর্বাহ্ণ
49

বাংলাদেশ ক্রিকেটের একটা বাজে সময়ে বহু প্রত্যাশিত ভারত সফর টাইগারদের। অতীতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে কখনো যাওয়া হয়নি ভারতে। কিন্তু যখন সেই ঐতিহাসিক সফরের দিনক্ষণ এলো তখন বিভিন্ন কারণে দলের অবস্থা হয়ে পড়লো সঙ্গীন। সেই সঙ্গীন অবস্থায় নানামুখি সংকট নিয়েই ভারত গেলো টাইগাররা। প্রথমেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ। দিল্লিতে অনুষ্ঠিত প্রথম ম্যাচে মহাশক্তিধর ভারতকে হারিয়ে টাইগাররা যেন প্রাণ ফিরে পেল। সেই প্রাণময়তায় তারা সিরিজ জয়ের কথাও ভাবছিল। সম্ভব হয়নি সেটা। তবে এখন নতুন নেতৃত্বে নতুন
চ্যালেঞ্জ। টেস্ট সিরিজ। দিল্লি জয়ের সাফল্য থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটি খেলতে আজ ইন্দোরে ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক বদলে গেছে। নতুন অধিনায়ক কঙবাজারের ছেলে মুমিনুল হকের নেতৃত্বে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ ভারত ক’দিন আগেই নিজেদের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ করে বেশ চাঙ্গা আছে। টি-টোয়েন্টিতে না থাকলেও দলে ফিরে এসেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারত দলে সব পরীক্ষিত পারফর্মার। পেস-স্পিন আর ব্যাটিং সবদিকেই ভারত সেরা। সেই ভারতের বিপক্ষে মুমিনুলরা কতটুকু লড়াই করবে-তাই হবে দেখার বিষয়। ভারত দারুণ গোছানো দল। কাকে রেখে কাকে খেলানো যায়, এ নিয়ে আছে মধুর সমস্যা। সেখানে বাংলাদেশকে সংগ্রাম করতে হচ্ছে অনেক কিছু নিয়ে। এর একটি হলো, পেস বোলিং আক্রমণ। আল আমিন হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, আবু জায়েদ চৌধুরী ও ইবাদত হোসেনের আরেকটি অগ্নিপরীক্ষা হতে যাচ্ছে এই সিরিজ। দেশের মাটিতে দারুণ সফল স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। দেশের বাইরে ততটাই সংগ্রাম করতে হয় তাদের। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সামনে তাদেরও দিতে হবে বড় পরীক্ষা। ঘটনাবহুল সময় পেরিয়ে বাংলাদেশ প্রবেশ করতে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের জগতে। মুমিনুলের হাত ধরে শুরু হতে যাচ্ছে নতুন অধ্যায়। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর পর এখন পর্যন্ত সিরিজ হারের মুখ দেখেনি ভারত। তারা র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা দল। ফলে বিরাট কোহলিদের অদম্য দলটির বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষার মুখেই পড়তে হচ্ছে মুমিনুল হকের নবীন দলকে। ঘরের মাটিতে সবশেষ ৩২ টেস্ট ম্যাচে, ২৬ জয়, ৫ ড্র আর ১ হার। শক্তিমত্তা ও সামপ্রতিক ফলাফল বিবেচনায় টেস্ট সিরিজে স্পষ্ট ফেভারিট ভারত। ঘরের মাটিতে টানা ১১ টেস্ট সিরিজ জেতার দারুণ রেকর্ড এখন এই দলটির দখলে। সেই ২০১৩ সাল থেকে ভারতকে তাদের মাটিতে কেউ সিরিজ হারাতে পারেনি। ম্যাচের হিসেবে সর্বশেষ ২০১৭ সালে পুনে টেস্টে জয় পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। আর সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩-০ ব্যবধানে বিধ্বস্ত করেছিল কোহলিবাহিনী। এদিকে সাকিব-তামিমকে ছাড়া তুলনামূলক অনভিজ্ঞ দল নিয়েও শক্ত লড়াই উপহার দেওয়ার লক্ষ্য বাংলাদেশের। যদিও কাজটা সহজ নয়। টেস্টে বাংলাদেশের সামপ্রতিক পারফরম্যান্স খুব একটা আশা জাগানিয়া নয়। ২০১৯ সালে খেলা ৩ ম্যাচের সবকটিতেই হেরেছে দলটি। সেপ্টেম্বরে ঘরের মাটিতে আফগানিস্তানের কাছে হেরে যাওয়া ছিল সবচেয়ে হতাশার। আর এবার বিশ্বের সেরা টেস্ট দলের মোকাবিলা করতে হবে। আট সেঞ্চুরি আর চল্লিশের বেশি গড় নিয়ে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে সবচেয়ে বড় ভরসা অধিনায়ক মুমিনুল হক নিজেই। সাকিব-তামিম না থাকায় তিন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েস ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ওপর বাড়তি দায়িত্ব পড়বে। তরুণদের মধ্যে সাদমান ইসলাম, লিটন দাস, মোহাম্মদ মিঠুন জ্বলে ওঠতে পারলে ম্যাচের মোড় পাল্টে যেতে পারে। তবে তরুণ সাইফ হাসানকে সুযোগ দিতে পারে বাংলাদেশ।
বাংলাদেশের বড় দুশ্চিন্তা বোলিং নিয়ে। দলের মূল বোলার সাকিব না থাকায় স্পিন বিভাগ সামলাতে হবে মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামকে। তাদের সাফল্য নির্ভর করছে ম্যাচের পিচ আর ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার ওপর। পেসারদের মধ্যে আবু জায়েদ রাহি তুলনামূলক অনভিজ্ঞ আর মোস্তাফিজ ফর্মের সঙ্গে লড়াই করছেন। এ অবস্থায় মাঠের লড়াইয়ে নামছে বাংলাদেশ স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে।

x