মীরসরাইয়ে ইরি ও কচু চাষীদের মুখে হাসি

ফাগুনের বৃষ্টি

মাহবুব পলাশ, মীরসরাই

শুক্রবার , ৮ মার্চ, ২০১৯ at ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ
95

ফাগুনের অকাল বৃষ্টিতে মীরসরাইয়ের ফসলের মাঠে মৌসুমী ইরি, কচু ও ডাল ক্ষেতের নতুন আলোতে চাষীদের মুখে ফুটেছে হাসি। মঘাদিয়া ইউনিয়নের শেখের তালুক গ্রামের কচু চাষী মামুনুর রশিদ ( ৪৬) জানায়, বিভিন্ন জাতের কচুর চারা মাত্র রোপণ করেছিলাম, ভেবেছিলাম মেশিন এনে খাল থেকে পানি সেচ করে দিবো। কিন্তু তা আর লাগলো না, গত কয়েকদিনের অকাল বৃষ্টিতে কচুর সকল চারা যেন হেসে উঠেছে। ৮ নং দুর্গাপুর গ্রামের কৃষক রবিউল হোসেন ( ৫২ ) বলেন, দেড় কানি জমিতে ইরি চাষ করেছিলাম, পানি তুলে চারা রোপণ করার পর জমির পানি শুকিয়ে আসছিলো। মেশিন দিয়ে পানির ব্যবস্থা করবো ভাবছিলাম। কিন্তু পর পর দুদিন ফাল্গুনী বৃষ্টি যেন উপহার নিয়ে এলো। এই বৃষ্টিতে পানির যেমন সমাধান হলো পাশাপাশি জমির পোকামাকড়ের আগ্রাসনের জন্যও সুবিধা হয়।
উপজেলার মায়ানী, মঘাদিয়া, সোনাপাহাড়, খৈয়াছরা, হাইতকান্দি, করেরহাট, জোরারগঞ্জ, ওচমানপুর, ওয়াহেদপুরসহ সকল গ্রামেই কৃষকরা এখন নিজ নিজ জমি থেকে আগাছা উত্তোলনে ব্যস্ত। স্ব স্ব ইরি বা মৌসুমি সবজি ক্ষেত পরিচর্যা নিয়ে ব্যস্ত সকলে।
মীরসরাই উপজেলার কৃষি সুপারভাইজার কাজী নুরুল আলম জানান, মীরসরাইয়ে এবার প্রায় ৩ হাজার কৃষক ১৪ ৬০ হেক্টর জমিতে ইরি চাষাবাদ করেছে। বৃষ্টিতে ধানের চারার চেহারায় আলো ফুটে উঠেছে। যেসব কৃষক ডালের ফলন নিয়ে আশাবাদী ছিলেন না তাঁরাও ভালো ডাল পাবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। তবে এর চেয়ে বেশী বৃষ্টি হলে ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি। সবচেয়ে বেশী উপকৃত হয়েছেন কচু চাষীরা বলে জানান তিনি। এবার প্রায় একশত হেক্টর জমিতে কচু চাষ হয়েছে ।

x