মিলি চৌধুরীর একক আবৃত্তিসন্ধ্যা হৃদয়ে মানবতা কণ্ঠে কবিতা

আনন্দন প্রতিবেদক

বৃহস্পতিবার , ২১ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ
1

মাবনিকতা ও আবৃত্তি চর্চাকেন্দ্র একুশের আয়োজনে ‘হৃদয়ে মানবতা কণ্ঠে কবিতা’ শিরোনামে ৩ নভেম্বর, ২০১৯ রবিবার সন্ধ্যা ৬:৩০মিনিটে চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির মিলনায়তনে দেশের জনপ্রিয় আবৃত্তিশিল্পী মিলি চৌধুরী’র একক আবৃত্তি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমেই জেল হত্যা দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় চার নেতার স্মরণে ১মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর প্রদীপ প্রজ্বলনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়।
এতে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমাণ্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ফাহিম উদ্দিন; বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ট্রাস্ট, চট্টগ্রামের ট্রাস্টি বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহেদ আহাম্মদ; বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক রীতা দত্ত; সম্মিলিত আবৃত্তি জোট, চট্টগ্রামের সভাপতি আবৃত্তি শিল্পী অঞ্চল চৌধুরী; জেলা শিল্পকলা একাডেমি, চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু; ডেল্টা ইমিগ্রেশনের সিইও মোহাম্মদ আলমগীর।
এছাড়া আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন চিকিৎসক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষাবিদসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন একুশের নির্বাহী পরিচালক রণধীর দে। উদ্বোধনের পরপরই মঞ্চে আসেন আবৃত্তিশিল্পী মিলি চৌধুরী।
সাময়িক পরিস্থিতি, প্রকৃতি, দেশ, প্রেম, দ্রোহ, ও ইতিহাসমাখা ২৮টি কবিতা আবৃত্তি করবেন তিনি। পরিবেশনা শুরু করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আফ্রিকা কবিতাটি দিয়ে।
এরপর একে একে আবৃত্তি করেন কাজী নজরুল ইসলামের হযরত, রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর মানুষের মানচিত্র, সুবোধ সরকারের মেয়েটি ও ছেলেটি, কাল্লু, রফিকুল হকের ব্যাঙের গান, সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের শিল, সুবোধ সরকারের ছুটি, আদিত্য অনীকের নীতিবোধ, সুবোধ সরকারের জন্মদিন, সুনির্মল বসুর মুখে আর মনে, ময়ূখ চৌধুরীর আগুন আগুন, দেবব্রত সিংহের তেজ, মিলি চৌধুরীর সম্পাদনা ভাগিরথী, শঙ্খ ঘোষের যমুনাবতী, সৈয়দ শামসুল হকের পরানের গহীন ভিতর (৪), হেলাল হাফিজের যাতায়াত, স্বপ্নময় চক্রবর্ত্তীর পারিবারিক চালচিত্র, মোস্তফা মীরের বেদনার পদাবলী, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের সাঁকো, শামসুর রাহমানের একটি কবিতার জন্য, অরুণ কুমার চক্রবর্তীর রবিঠাকুর পেন্নাম হই, আদিত্য অনীকের মিথ্যাবাদী মা, মহাদেব সাহার মানুষের পাশে থেকো, সংগৃহীত কবিতা চুপ থাকুন, হুমায়ুন আজাদের আমি সম্ভবত খুব ছোট্ট কিছুর জন্যে মারা যাবো, জীবনানন্দ দাশের আবার আসিব ফিরে এবং ইব্রাহীম আজাদের উৎসর্গ কবিতা আবৃত্তির মধ্য দিয়ে পরিবেশনা শেষ করেন। কবিতাপুত্রী মিলির অসাধারণ পরিবেশনা মুগ্ধ করে দর্শক শ্রোতাদের।
অনুষ্ঠানে আবহ প্রক্ষেপণ করেন নিখিলে বড়ুয়া, রনি চৌধুরী, জয় চন্দ্র বিশ্বাস ও সুব্রত ভট্টচার্য্য। পরিবেশনা শেষে গুণী এই আবৃত্তিশিল্পীকে উত্তরীয় ও স্মারক উপহার তুলে দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফাহিম উদ্দিন ও বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহেদ আহাম্মদ।
এরপর সম্মিলিত আবৃত্তি জোট, চট্টগ্রামের জোটভূক্ত দলসমূহ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। পরিশেষে একুশের সভাপতি ডা. শ্যামল কর্মকারের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অয়োজনের সমাপ্তি ঘটে।

x