মার্কিন সেনার নতুন শাখা, মহাকাশ বাহিনী!

বুধবার , ২০ জুন, ২০১৮ at ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ
138

আকাশ, মাটি, জল হলে মহাকাশ কেন নয়। এমন প্রশ্ন আগেও করেছিলেন তিনি। এবার সেই ভাবনাকেই বাস্তবে রূপ দিতে চাইছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। অতএব নির্দেশ মহাকাশ সেনা গঠনের। পেন্টাগন ও মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগকে ‘স্পেস ফোর্স’ তৈরির নির্দেশ দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্চ মাসেই মহাশূন্যে সামরিক বাহিনী পাঠানোর কথা বলেছিলেন ট্রাম্প। মার্কিন সশস্ত্র বাহিনীর ষষ্ঠ শাখা হবে এই ‘স্পেস ফোর্স’। ৭১ বছর পর মার্কিন সেনাবাহিনীতে নতুন করে কোনও শাখা যুক্ত হচ্ছে।

সোমবার ন্যাশনাল স্পেস কাউন্সিলের একটি অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন, ‘স্পেস ফোর্স হবে বিমান বাহিনীর সমকক্ষ। তবে তা আবার আলাদাও। আমি চাই না, চীন বা অন্য কোনও দেশ আমাদেরকে ছাপিয়ে যাক।’ ট্রাম্প জানিয়েছেন, আমেরিকার কাছে এয়ারফোর্স থাকলেও ‘স্পেস ফোর্স’ নেই। ন্যাশনাল স্পেস কাউন্সিলের অনুষ্ঠানে ট্রাম্প জানান, মহাকাশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব আরও জোরালো হওয়া উচিত। শুধু বাণিজ্যিক ক্ষেত্রই নয় এই উদ্যোগ সার্বিকভাবে ইতিবাচক। শুধুমাত্র মহাকাশ যুদ্ধের জন্যই এই বাহিনী তৈরি করা হচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। মার্কিন স্পেস কম্যান্ড কার্যালয় থেকে এই স্পেস ফোর্সকে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এই সংক্রান্ত একটি চুক্তিও হয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার সঙ্গে। সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, সোমবার স্পেস ট্রাফিক ম্যানেজমেন্টের জন্য একটি পৃথক পরিকাঠামো তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন ট্রাম্প। যদিও সেটি কেমন হবে, তার বর্ণনা দেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এর আগে ট্রাম্প মহাকাশ বাহিনীর উল্লেখ করায় পেন্টাগনের বেশ কয়েকজন সিনিয়র অফিসার, ডিফেন্স সেক্রেটারি জিম ম্যাটিস, এয়ারফোর্সের সেক্রেটারি হিথার উইলসন, এয়ারফোর্স চিফ অফ স্টাফ জেনারেল ডেভিড গোল্ডফেইন এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন। অতিরিক্ত অর্থ খরচের কারণ ছাড়াও কূটনৈতিক কারণেও সেই সময় বিরোধিতা করেছিলেন তারা। তবে ট্রাম্পের নির্দেশের পর আগামী দু’বছরের মধ্যে স্পেস ফোর্সের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। ট্রাম্পের মত, মার্কিন বাহিনীর বৈপ্লবিক সংস্কার হতে চলেছে এটি।

x