মানবসম্পদকে আসল সম্পদে পরিণত করতে হবে

কেডিএস ফ্যাশন পরিদর্শনে সিআইইউ মানবসম্পদ শাখার শিক্ষার্থীরা

বুধবার , ৬ নভেম্বর, ২০১৯ at ৬:৪৭ অপরাহ্ণ
91

শুধু টাকা পয়সা বেশি থাকলেই কি কোনো কোম্পানি কিংবা প্রতিষ্ঠান লাভবান হয়ে যায়? সময়ের সঙ্গে এগিয়ে যেতে যেমন চাই চ্যালেঞ্জ নেয়ার মানসিকতা, ঠিক তেমনি প্রতিযোগিতার বাজারে মানবসম্পদকে আসল সম্পদে পরিণত করে প্রমাণ করতে হবে প্রাতিষ্ঠানিক যোগ্যতা।
মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনার ব্যবহারিক নানা দিক জানতে চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি (সিআইইউ)-এর বিজনেস স্কুলের একঝাঁক শিক্ষার্থী পরিদর্শন করলেন চট্টগ্রামের বৃহৎ প্রতিষ্ঠান ‘কেডিএস ফ্যাশন লিমিটেড’।
সম্প্রতি হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট (এইচআরএম) বা মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের এসব শিক্ষার্থীরা সরজমিনে কেডিএস ফ্যাশন লিমিটেডের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।
এ সময় তারা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পদ্ধতি, লোকবল ব্যবস্থাপনা, সম্মিলিত কর্মদক্ষতা, সৃষ্টিশীল যোগ্যতা, পরিকল্পনা, নিয়োগ প্রক্রিয়া, প্রশিক্ষণ, প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কর্মীদের নিবিড় সম্পর্কসহ বিভিন্ন বিষয়গুলো জানার চেষ্টা করেন।
পরিদর্শন কার্যক্রমে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন সিআইইউর এইচআরএম বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী খালেদ, বিবিএ প্রোগ্রাম কর্ডিনেটর ও সহযোগী অধ্যাপক ড. ইমণ কল্যাণ চৌধুরী, এইচআরএম বিভাগের প্রভাষক তামান্না বিনতে জামান, কেডিএস গার্মেন্টস ডিভিশনের হেড অব এইচআর সাইফুল আবেদিন, সহকারি ম্যানেজার সনজিত আচার্য্য প্রমুখ।
শিক্ষার্থীরা জানান, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা ধারণাটি আধুনিক বিশ্বেরর ক্যারিয়ার জগতে নতুন সম্ভাবনা তৈরি করেছে। বাংলাদেশেও এই পেশার জনপ্রিয়তা বাড়ছে। বাস্তবমুখী শিক্ষা আর কর্মমুখী জ্ঞান- দুটোই মানবসম্পদ শাখাকে অন্য পেশার চেয়ে আলাদাভাবে তুলে ধরেছে।
সাঈদা সাইবা সারওয়ার নামের একজন ছাত্রী বলেন, ‘এই ধরনের পরিদর্শন কার্যক্রম ব্যবহারিক জ্ঞানের ঝুলিকে আরও বেশি সমৃদ্ধ করছে। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই সেক্টরের দিকে অধিক মনোযোগী হতে হবে।’
একই রকম অভিমত ব্যক্ত করে সায়মন চৌধুরী নামের আরেক ছাত্র বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় অধিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করলে মানবসম্পদ শাখার নিয়োজিত ব্যক্তিরা আরও দক্ষ হয়ে গড়ে উঠবেন।’
প্রভাষক তামান্না বিনতে জামান বলেন, ‘সিআইইউ’র এইচআরএম বিভাগ সবসময় ক্লাসরুমের বাইরে ব্যবহারিক শিক্ষাকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকে।’ একটি প্রতিষ্ঠানের সফলতা ধরে রাখতে এই বিভাগের কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।

x